বয়কটের ফলে কোকা-কোলা সাদা রংয়ের পানীয় নিয়ে নতুন রূপে আত্মপ্রকাশ করেনি 

২০২৩ সালের ৭ই অক্টোবর থেকে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠীর মধ্যে চলমান সংঘাতের প্রেক্ষিতে, ইসরায়েলি সমর্থনের অভিযোগে মুসলিম দেশগুলোর নাগরিক সমাজ কোকা-কোলা পণ্যের বিরুদ্ধে বয়কটের ডাক দেয়।

এই প্রেক্ষাপটে, সম্প্রতি “সব রং ধরা শেষ! এবার তিনি আত্মপ্রকাশ করতেছেন একদম সাদাসিধে বিধবা হয়ে! এরপরও কি জনগণ গ্রহণ করবে!?” শিরোনামে ‘CocaCola Clear’ নামের একটি পণ্যের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। যার মাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে, বয়কট এড়াতে কোকা-কোলা এবার সাদা রংয়ে নিজেদের পুনঃপ্রকাশ করেছে।

কোকা-কোলা সাদা

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বয়কটের কারণে কোকা-কোলা বাংলাদেশে সাদা রংয়ের পানীয় নিয়ে নতুন রূপে আত্মপ্রকাশ করেনি বরং সাদা রংয়ের আলোচ্য কোকা-কোলা ক্লিয়ার ২০১৮ সালে জাপানে প্রথম বাজারজাত করা হয়েছিল।

দাবিকৃত ফেসবুক পোস্টগুলোতে যুক্ত বোতলে ‘CocaCola Clear’ লেখা দেখা যায়। সেই সূত্রে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, বেভারেজ শিল্প বিষয়ক অনলাইন পোর্টাল বেভারেজডেইলির ওয়েবসাইটে ২০১৮ সালের ১২ জুন প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালে জাপানে কোকা-কোলা ক্লিয়ার নামে একটি স্বচ্ছ পানীয় চালু হয়। এটি লেবুর স্বাদ যুক্ত জিরো ক্যালোরি বিশিষ্ট একটি পানীয়। এতে কোকা-কোলা ক্লাসিকের প্রচলিত ক্যারামেল রং বাদ দেওয়া হয়েছে।

২০১৮ সালে হংকং ভিত্তিক ইংরেজি সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের একটি প্রতিবেদন থেকেও একই তথ্য জানা যায়। 

অর্থাৎ, সম্প্রতি নয়, সাদা রংয়ের এই কোকা-কোলা ২০১৮ সালে জাপানে প্রথম বাজারজাত করা হয়েছিল। 

এই কোকা-কোলা কি বাংলাদেশে পাওয়া যায়?

এই বিষয়ে জানতে কোকা-কোলা বাংলাদেশের ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, বাংলাদেশে কোকা-কোলা ব্র্যান্ডের অধীনে সাধারণ কোকা-কোলা, কোকা-কোলা জিরো সুগার এবং ডায়েট কোক পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে জানতে বাংলাদেশে কোকা-কোলার ফ্র্যাঞ্চাইজি বোতলজাতকারী প্রতিষ্ঠান আব্দুল মোনেম লিমিটেডের (এএমএল) এর সাথে যোগাযোগ করলে প্রতিষ্ঠানটির বেভারেজ ইউনিটের সেলস ক্যাপাবিলিটি ডেভেলপমেন্ট বিভাগের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ইসরাত জাহান ইমা রিউমর স্ক্যানারকে জানায়, বাংলাদেশে এটার (কোকা-কোলা ক্লিয়ার) প্রোডাকশন করা হয় না।

অর্থাৎ, সাদা রংয়ের কোকা-কোলা ক্লিয়ার বাংলাদেশে পাওয়া যায় না।

মূলত, ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনের সংঘর্ষে ইসরায়েলি সমর্থনের অভিযোগে মুসলিম দেশগুলোর নাগরিক সমাজ কোকা-কোলা পণ্যের বিরুদ্ধে বয়কট করার আহ্বান জানায়। এর প্রেক্ষিতে, সামাজিক মাধ্যমে ‘CocaCola Clear’ নামে এক সাদা পানীয়ের ছবি ভাইরাল হয়। দাবি করা হয়, বয়কট এড়াতে কোকা-কোলা এবার সাদা রংয়ে পানীয় নিয়ে নিজেদের নতুন করে আত্মপ্রকাশ করেছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, এই পণ্যটি আসলে ২০১৮ সালে জাপানে প্রথম বাজারজাত করা হয়েছিল এবং বাংলাদেশে এই পণ্যটি পাওয়া যায় না।

পূর্বেও বয়কটের কারণে কোকা-কোলার মোড়ক পরিবর্তন করেছে দাবিতে একটি মিথ্যা তথ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল রিউমর স্ক্যানার টিম।

সুতরাং, বয়কটের কারণে কোকা-কোলা সাদা রংয়ের পানীয় নিয়ে নতুন রূপে আত্মপ্রকাশ করেছে দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত বিষয়টি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img