শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি পুলিশের হামলার খবরে গণমাধ্যমে পুরোনো ছবি প্রচার

সম্প্রতি, আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনিদের উপর ইসরায়েলের পুলিশের হামলার সংবাদে মসজিদের মেঝেতে পরে থাকা মানুষেরএকটি ছবি গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছে।

আলোচিত ছবিটি ব্যবহার করে দেশীয় গণমাধ্যমে প্রচারিত প্রতিবেদনে দেখুন; অর্থসূচক, ঢাকা মেইল, যুগান্তর, ইনকিলাব, এসএ টিভি, জুমবাংলা
আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ প্রতিবেদনটি দেখুন; Daily Mail (আর্কাইভ)।

উক্ত ছবি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম  ফেসবুকে প্রচারিতপোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমার স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আল-আকসা মসজিদে নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি পুলিশের হামলার ঘটনায় প্রচারিত ছবিটি সাম্প্রতিক সময়ের নয় বরং ছবিটি ২০২২ সালের ২২ এপ্রিলে আল আকসা মসজিদেই ইসরায়েলি পুলিশ কর্তৃক ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলার ঘটনায় ধারণকৃত।

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যেমে, ডেনমার্কের গণমাধ্যম ‘ARBEJDEREN’ এ গত ২০২২ সালের ২৯ এপ্রিল তারিখে “Israel har angrebet palæstinensere ved al-Aqsa-moskeen under hele ramadanen” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে হুবহু একই ছবি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from ARBEJDEREN

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা ছিলো, ‘২২ এপ্রিল, অসংখ্য ফিলিস্তিনিকে পিছনে বেঁধে পবিত্র আল-আকসা মসজিদের মেঝেতে শুইয়ে দেওয়া হয়েছিল। ছবি: রিজওয়ান শফিকা (অনূদিত)।

এছাড়া, একই তারিখে আলজেরিয়ান সাংবাদিক ‘হাফিদ দেরাদজি’ এর ভেরিফাইড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে “New violations against our people and sanctities from within Jerusalem. The continuing crime against our people requires adherence to our right to defend our dignity, our land and our sanctity by all means.”(স্বয়ংকৃত অনূদিত) শীর্ষক ক্যাপশনে প্রচারিত টুইটেও একই ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Twitter

অর্থাৎ, সাম্প্রতিক সময়ে আল-আকসা মসজিদে নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর ইজরায়েলি পুলিশের হামলার দাবিতে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত ছবিটি প্রায় ১ বছর আগের।

মূলত, গত ৫ এপ্রিল ইসরায়েলি পুলিশ  কর্তৃক আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনিদের নামাজরত অবস্থায় দুইবার হামলার ঘটনা ঘটে। প্রথমে ছয়জন এবং পরবর্তীতে ১২ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনারদাবি করে একটি ছবি গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে ছড়িয়ে পড়ে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সাম্প্রতিক ইসরায়েলি পুলিশ আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনিদের নামাজরত অবস্থায় হামলার ঘটনায় প্রচারিত ছবিটি অন্তত এক বছর পুরানো।

উল্লেখ্য, এর আগেও বিভিন্ন সময় এক ঘটনার প্রেক্ষিতে অন্য ঘটনার ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে  সেগুলো সনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। দেখুন এখানে, এখানে, এখানে।

সুতরাং, আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি পুলিশের হামলার প্রায় ১ বছর পুরোনো ছবিকে সাম্প্রতিক সময়ে আল-আকসা মসজিদে নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি পুলিশের হামলার ঘটনার ছবি দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img