১৯৭৮ ও ১৯৮৬ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আর্জেন্টিনা পেনাল্টি মিস করেনি

সম্প্রতি বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে মেসির পেনাল্টি মিসের পর বিশ্বকাপের ইতিহাসে আর্জেন্টিনার পেনাল্টি মিসের একটি পরিসংখ্যান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

পেনাল্টি

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়ার পর এই বিষয়ে দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যম প্রথম আলো, দ্য ডেইলি স্টার, দৈনিক ইনকিলাব, বাংলাদেশ প্রতিদিন, আমাদের সময়, দৈনিক আমাদের সময়, চ্যানেল২৪, বাংলানিউজ২৪, কালের কন্ঠ, আজকের পত্রিকা, সংবাদ প্রকাশ, নিউজ২৪বিডি, বাংলা ইনসাইডার এবং নয়া শতাব্দী সংবাদ প্রচার করেছে।

পরিসংখ্যানে যা দাবি করা হয়েছে

মারিও কেম্পেস ১৯৭৮ সালের বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেন এবং সে বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতে।

আবার, ম্যারাডোনা ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে তৃতীয় ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেন এবং এবারও আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ১৯৭৮ ও ১৯৮৬ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে মারিও কেম্পেস ও ডিয়েগো ম্যারাডোনার পেনাল্টি মিসের দাবিটি সত্য নয় বরং সেই ম্যাচগুলোতে আর্জেন্টিনা কোনো পেনাল্টি-ই পায়নি।

গুজবটি ছড়ালো যেভাবে

০১ ডিসেম্বর ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ এর নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমার্ধে পেনাল্টি মিস করেন লিওনেল মেসি। মেসির উক্ত পেনাল্টি মিসকে কেন্দ্র করে একাধিক আন্তর্জাতিক স্পোর্টস গণমাধ্যম বিশ্বকাপের ইতিহাসে আর্জেন্টিনার পেনাল্টি মিসের একটি পরিসংখ্যান প্রচার করেন। যা পরবর্তীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এ নিয়ে বাংলাদেশের বেশ কিছু গণমাধ্যমও সংবাদ প্রকাশ করে।

১৯৭৮ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে মারিও কেম্পেস কি পেনাল্টি মিস করেছিলেন?

অনুসন্ধানের মাধ্যমে ফিফার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ১৯৭৮ বিশ্বকাপের সময়সূচী খুঁজে পাওয়া যায়। সেখান থেকে জানা যায় উক্ত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার তৃতীয় ম্যাচ ছিলো ইতালির বিপক্ষে, যা ১৯৭৮ সালের ১১ জুন অনুষ্ঠিত হয়েছিলো।

Screenshot Source: FIFA

পরবর্তীতে, ফিফাসহ বিভিন্ন গ্রহণযোগ্য সূত্রে উক্ত ম্যাচের বিবরণী খুঁজে পাওয়া যায়। বিবরণীগুলো দেখে নিশ্চিত হওয়া যায় আলোচিত ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনা কোনো পেনাল্টি-ই পায়নি।

Screenshot Source: FIFA

এছাড়া ফিফার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আর্জেন্টিনা বনাম ইতালি সম্পূর্ণ ম্যাচের ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। পুরো ম্যাচে মারিও কেম্পেসের পেনাল্টি মিস তো দূরে থাক ওই ম্যাচে রেফারি পেনাল্টির কোনো সিদ্ধান্ত দেননি।

Screenshot Source: FIFA

সুতরাং, ১৯৭৮ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আর্জেন্টাইন ফুটবলার মারিও কেম্পেসের পেনাল্টি মিস করার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

১৯৮৬ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে ডিয়েগো ম্যারাডোনা কি পেনাল্টি মিস করেছিলেন?

এবারো, ফিফার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ১৯৮৬ বিশ্বকাপের সময়সূচী খুঁজে পাওয়া যায়। সেখান থেকে জানা যায় উক্ত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার তৃতীয় ম্যাচ ছিলো বুলগেরিয়ার বিপক্ষে, যা ১৯৮৬ সালের ১০ জুন অনুষ্ঠিত হয়েছিলো।

Screenshot Source: FIFA

পরবর্তীতে, ফিফাসহ বিভিন্ন গ্রহণযোগ্য সূত্রে উক্ত ম্যাচের বিবরণী খুঁজে পাওয়া যায়। বিবরণীগুলো দেখে নিশ্চিত হওয়া যায় আলোচিত ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনা কোনো পেনাল্টি-ই পায়নি।

Screenshot Source: FIFA

এছাড়া ফিফার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আর্জেন্টিনা বনাম বুলগেরিয়া সম্পূর্ণ ম্যাচের ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। পুরো ম্যাচে ডিয়েগো ম্যারাডোনার পেনাল্টি মিস তো দূরে থাক ওই ম্যাচে রেফারি পেনাল্টির কোনো সিদ্ধান্ত দেননি।

Screenshot Source: FIFA

তাছাড়া জনপ্রিয় স্পোর্টস গণমাধ্যম Goal এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ডিয়েগো ম্যারাডোনা নিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যারিয়ারে শুধুমাত্র একটি প্যানাল্টি মিস করেছিলেন, যা ছিলো ১৯৯০ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে যুগোস্লাভিয়ার বিপক্ষে টাই ব্রেকারে।

এই সূত্রটি ধরে ফিফার ওয়েবসাইট থেকে ১৯৯০ বিশ্বকাপের উক্ত ম্যাচের পরিসংখ্যান খুঁজে বের করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ফিফার ওয়েবসাইটে দেখা যায়, ম্যাচটি শূণ্য গোলে ড্র হওয়ায় টাই ব্রেকার হয় এবং ট্রাইবেকারের পেনাল্টিতে গোল দিতে ব্যর্থ হন ম্যারাডোনা। যদিও সেই ম্যাচে ৩-২ গোলে আর্জেন্টিনা জিতে যায়।

Screenshot Source: FIFA

সুতরাং, ১৯৮৬ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আর্জেন্টাইন ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনার পেনাল্টি মিস করার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। এছাড়া ডিয়েগো ম্যারাডোনা নিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যারিয়ারে শুধুমাত্র একটি প্যানাল্টি-ই মিস করেছিলেন।

মূলত, আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হলে ম্যাচটির প্রথমার্ধে লিওনেল মেসি একটি পেনাল্টি মিস করেন। উক্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে বিশ্বকাপের ইতিহাসে আর্জেন্টিনা তৃতীয় ম্যাচে পেনাল্টি মিস করে সেই বিশ্বকাপ জেতার একটি পরিসংখ্যান ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দাবি করা হয় ১৯৭৮ বিশ্বকাপে মারিও কেম্পেস এবং ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ডিয়েগো ম্যারাডোনা তৃতীয় ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেছিলেন। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, দুটো দাবিই মিথ্যা। ১৯৭৮ ও ১৯৮৬ বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে আর্জেন্টিনা কর্তৃক পেনাল্টি মিসের কোনো ঘটনা ঘটেনি। এছাড়া ডিয়েগো ম্যারাডোনা নিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যারিয়ারে ১৯৯০ বিশ্বকাপে শুধুমাত্র একটি প্যানাল্টি-ই মিস করেছিলেন।

প্রসঙ্গত, চলমান কাতার ফুটবল বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে একাধিক গুজব ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, যে বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনা তৃতীয় ম্যাচে পেনাল্টি মিস করে সেই বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনা জেতার পরিসংখ্যানটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img