স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদকে বরখাস্তের ঘোষণা দেননি

সম্প্রতি, “চাকুরি থেকে বরখাস্ত এসপি হারুন, এইমাত্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ঘোষণা” শীর্ষক শিরোনাম থাম্বনেইলে উল্লেখপূর্বক একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। থাম্বনেইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পুলিশ মহাপরিদর্শক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখার প্রধান হারুন অর রশিদের ছবি দেওয়া আছে। ক্যাপশনে এসপি হারুন বলে উল্লেখ করা হলেও থাম্বনেইলের ছবিসহ সার্বিক বিবেচনায় এটা নিশ্চিত যে ভিডিওতে হারুন বলতে ডিএমপির গোয়েন্দা শাখার প্রধান হারুন অর রশিদকেই বোঝানো হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

Viral Topic নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি দেখা হয়েছে প্রায় ২৬ হাজার বার। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখার প্রধান হারুন অর রশিদকে বরখাস্তের ঘোষণা দেননি বরং অধিক ভিউ পাবার আশায় কোনো তথ্যসূত্র ছাড়াই চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে ভিডিওটিতে কোথাও আলোচিত দাবি সম্পর্কিত কোনো তথ্য উপস্থাপন করা হয়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির কোনো তথ্য প্রমাণও উল্লেখ পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ ভিডিওটি’র থাম্বনেইলে প্রচারিত দাবিটির সাথে বিস্তারিত অংশের অসামঞ্জস্যতা রয়েছে। ৮ মিনিট ১৬ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে ভিন্ন ভিন্ন সংবাদ উপস্থাপন করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে ভিডিওর কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে জানা যায়, আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওর প্রথম অংশে যে ফুটেজটি দেখানো হয় তা এটিএন বাংলা নিউজের ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৫ এপ্রিল “পুলিশের চাকুরী হারিয়ে দিশেহারা ডিবি প্রধান হারুনের তখন কি অবস্থা ? DB Harun | Harun-or-Rashid” শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল।

Screenshot comparison: Rumor Scanner

গুগল রিভার্স ভিডিও সার্চ টুল ব্যবহার করে অনুসন্ধানে জানা যায়, ব্যারিস্টার সুমনের যে ভিডিও ক্লিপটি উক্ত ভিডিওতে যুক্ত করা হয়েছে, তা মূলত ব্যারিস্টার সুমনের ফেসবুক পেইজ Barrister Syed Sayedul Haque Suman এর “সমাজ সেবা কর্মকর্তা নিজেই টাকা চুরি করলেন, ধরা পড়লেন, উনিই আবার সমাজ সেবার মহান দায়িত্বে!” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত ভিডিও থেকে নেওয়া। যেখানে তিনি জয়পুরহাট জেলার সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ইমাম হাশিমের দুর্নীতিমূলক কর্মকান্ড নিয়ে সমালোচনা করেন। তবে ভিডিওটিতে তিনি ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুনকে নিয়ে কোনো আলোচনাই করেন নি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কোনো বক্তব্যও তিনি  উল্লেখ  করেননি।

ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ বরখাস্ত হয়েছেন কিনা সেটি অধিকতর নিশ্চিতে উক্ত দাবির সপক্ষে গণমাধ্যমে কোনো সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়নি। বরং ডিএমপির ডিবি প্রধান হিসেবে গণমাধ্যমে হারুন অর রশিদের কার্যক্রম ও সরব উপস্থিতি পরিলক্ষিত হয় (, , )।

এছাড়া, সম্প্রতি পুলিশে হারুন নামের এসপি বা পুলিশ সুপার পদমর্যাদার কোনো কর্মকর্তাকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরখাস্তের ঘোষণা দিয়েছেন কিনা সে বিষয়ে অনুসন্ধানে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, চাকরি জীবনের শুরুতে ২০ তম বিসিএসের পুলিশ কর্মকর্তা হারুন অর রশিদকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছিল। পরবর্তীতে আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে চাকরি ফিরে পান তিনি।

মূলত, আলোচিত ভিডিওর থাম্বনেইলে এসপি হারুনকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বরখাস্তের ঘোষণা দিয়েছেন দাবি করা হলেও ভিডিওর থাম্বনেইলে দেখানো হয়েছে ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদের ছবি। এছাড়া ভিডিওতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কর্তৃক হারুন নামের কোনো পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্তের ঘোষণার দাবি সম্পর্কিত কোনো তথ্য উপস্থাপন করা হয়নি। ভিডিওতে  ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ ও সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনের পৃথক দুটি ফুটেজ দেখানো হয়েছে। তবে দুটি ফুটেজের কোথাও ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন কিংবা হারুন নামের অন্য কোনো পুলিশ কর্মকর্তাকে চাকরি থেকে বরখাস্তের দাবি সম্পর্কিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। প্রকৃতপক্ষে ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদ স্বপদে বহাল আছেন এবং নিয়মিত দায়িত্ব পালন করছেন।

সুতরাং, ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশিদকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বরখাস্তের ঘোষণা দিয়েছেন মর্মে প্রচারিত দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img