ইসরায়েলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভের ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ের নয়

সম্প্রতি, “ইসরায়েলে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবীতে ব্যাপক বিক্ষোভ। ইসরায়েলীদের দাবী নেতানিয়াহু একজন খুনি। এখনই গাজায় আগ্রাসন বন্ধের দাবী ইসরায়েলের নাগরিকদের।” শীর্ষক শিরোনামের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ)।

প্রধানমন্ত্রী

ইংরেজি ভাষায় একই দাবিতে প্রচারিত কিছু এক্স(টুইটার) ভিডিও দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত ভিডিওটির প্রথম অংশে ড্রোনশটের মাধ্যমে দেখানো ইসরায়েলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভের ভিডিওটি সম্প্রতি ফিলিস্থিনের সাথে সংঘাত শুরু পরের নয় বরং এটি চলতি বছরের মার্চে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভের ভিডিও।

অনুসন্ধানের শুরুতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওটি পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওর প্রথম অংশে ইসরায়েলি পতাকা তুলে ধরে বিক্ষোভ করতে দেখা যায়। উক্ত দৃশ্যের পরেই তেলআবিবে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভরত জনতার মাঝে নিউজ রিপোর্টিং দেখতে পাওয়া যায়। 

পরবর্তীতে, আলোচিত বিক্ষোভরত দৃশ্যের কী ফ্রেম রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফের ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ১২মার্চ “Israel’s ‘biggest ever’ protests as Benjamin Netanyahu’s government persists with reforms” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, চলতি বছরের মার্চে নেতানিয়াহু প্রশাসনের আইন সংস্কারের প্রতিবাদে তেল আবিবে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ পালন করে ইসরায়েলি জনগণ।

Source: The Telegraph

উক্ত প্রতিবেদনের সূত্র ধরে টেলিগ্রাফের ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১২মার্চের একটি ভিডিও খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

উক্ত ভিডিওর বিস্তারিত বিবরণ থেকে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, আলোচিত ভিডিওটির ড্রোন শটের মাধ্যমে নেওয়া দৃশ্যের অংশটি চলতি বছরের মার্চে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভরতদের ভিডিও।

Source: The Telegraph

পরবর্তীতে, আলোচিত ভিডিওটির দ্বিতীয় অংশ অর্থাৎ বিক্ষোভরতদের মধ্যে রিপোর্টিংয়ের অংশের বিষয়ে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম। 

উক্ত অংশের কি ফ্রেম রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, ABC News এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১৪ অক্টোবর “On the ground in Tel Aviv with protestors” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

উক্ত ভিডিও প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ভিডিওটি চলমান হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধে হামাসের হাতে বন্দি ইসরায়েলি নাগরিকদের মুক্তির জন্য তেলআবিবে ইসরায়েলি জনতার সমবেতস্থল থেকে সাংবাদিক ম্যাট গুটম্যানের ভিডিও প্রতিবেদন। 

Source: ABC News

মূলত, চলতি বছরের মার্চে নেতানিয়াহু প্রশাসনের আইনি সংস্কারের প্রতিবাদে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিপুলসংখ্যক ইসরায়েলি বিক্ষোভে অংশ নেয়। সেই বিক্ষোভের ড্রোন শটের ভিডিওকে চলমান হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধে হামাসের হাতে বন্দি ইসরায়েলিদের মুক্তির জন্য তেলআবিবে সমবেত ইসরায়েলিদের বিক্ষোভের একটি ভিডিও প্রতিবেদনের সাথে জুড়ে দিয়ে হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের জন্য সমবেত ইসরায়েলিদের বিক্ষোভের ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ০৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরায়েলে ‘অপারেশন আল-আকসা ফ্লাড’ নামে হামলা শুরু করে। এই হামলার প্রেক্ষিতে ইসরায়েলও হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজা উপত্যকায় পাল্টা হামলা চালায়। এতে দেশ দুইটির মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা সংঘাত নতুন মাত্রা পায়৷ 

উল্লেখ্য, চলমান ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের সংঘাত ইস্যুতে একাধিক ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার৷

সুতরাং, ভিন্ন ইস্যুতে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবির বিক্ষোভের ভিডিওর সাথে হামাসের হাতে বন্দি ইসরায়েলিদের মুক্তির জন্য তেলআবিবে সমবেত ইসরায়েলিদের বিক্ষোভের সাম্প্রতিক ভিডিও জুড়ে দিয়ে তৈরি ভিডিওকে চলমান-হামাস ইসরায়েল যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নেতানিয়াহুর পদত্যাগের জন্য ইসরায়েলিদের বিক্ষোভের ভিডিও দাবি করে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে;যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img