শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

চন্দ্রপৃষ্ঠে অশোকস্তম্ভের ছবিটি ডিজিটাল আর্টওয়ার্কের মাধ্যমে তৈরি করা

সম্প্রতি, চন্দ্রপৃষ্ঠে অশোকস্তম্ভের ছবি দাবিতে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

Facebook Screenshot 

ফেসবুকে প্রচারিত এরূপ কিছু পোস্ট দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, চাঁদের মাটিতে অশোকস্তম্ভের ছবিটি বাস্তব নয় বরং ডিজিটাল আর্টওয়ার্কের মাধ্যমে ছবিটি তৈরি করা হয়েছে।

প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি অনুসরণ করে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই সময় এর ওয়েবসাইটে ২০২৩ সালের ২৮ আগস্ট প্রকাশিত “Chandrayaan-3 Picture : চাঁদের মাটিতে অশোকস্তম্ভের ছাপ? জানুন ভাইরাল ছবির সত্যতা” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রতিবেদন খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, কৃষাণশু গর্গ নামের জনৈক ব্যক্তি ডিজিটাল আর্টওয়ার্কের মাধ্যমে কাল্পনিক এই ছবিটি তৈরি করেন।

Source: এই সময়

পাশাপাশি, রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে Hiclipart এর ওয়েবসাইটে আলোচ্য ছবির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ ভেক্টরের ছবিও খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে, কৃষাণশু গর্গ নামের যে ব্যক্তি ছবিটি তৈরি করেছিলেন তার ইনস্টগ্রাম অ্যাকাউন্টে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম। অনুসন্ধানে দেখা যায়, ২০২৩ সালের ২৪ আগস্ট krishanshugarg নামের ভেরিফাইড ইনস্টগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে আলোচ্য ছবিটি পোস্ট করা হয়।

পোস্টের ক্যাপশন থেকে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, উক্ত ছবিটি কৃষাণশু গর্গ এর তৈরি একটি আর্টওয়ার্ক। উপরন্তু, পোস্টের ক্যাপশন থেকে আরও নিশ্চিত হওয়া যায় যে, অনেকেই এই ছবিটিকে চাঁদের মাটিতে অশোকস্তম্ভের বাস্তব ছবি হিসেবে প্রচার করছেন। ইনস্টগ্রাম পোস্টে কৃষাণশু গর্গ এই ভুল তথ্য প্রচার থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান।

Source: krishanshugarg

মূলত, কৃষাণশু গর্গ নামের জনৈক আর্টিস্ট ডিজিটাল আর্টওয়ার্কের মাধ্যমে চন্দ্রপৃষ্ঠে অশোকস্তম্ভের ছাপ সম্বলিত এলটি কাল্পনিক ছবি তৈরি করেন। পরবর্তীতে, সেই ছবিটিই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চাঁদের মাটিতে চন্দ্রযান-৩ এর বাস্তব ছবি দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে, ছবিটি চন্দ্রপৃষ্ঠে অশোকস্তম্ভের ছবিটি ডিজিটাল আর্টওয়ার্কের মাধ্যমে তৈরি।

প্রসঙ্গত, পূর্বেও ভারতের চন্দ্রযান-৩ এর তোলা ছবির ব্যাপারে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে পড়লে সে বিষয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, একটি ডিজিটাল আর্টওয়ার্ককে চাঁদের পৃষ্ঠে অশোকস্তম্ভের বাস্তব ছবি দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img