শনিবার, মে 18, 2024
spot_img

মেসি নয়, ফেনীর মতিনকে জার্সি দিয়েছে আর্জেন্টিনার সরকার

সম্প্রতি, ফেনীর আবদুল মতিন নামে এক আর্জেন্টিনা ভক্তের জন্য আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি জার্সি পাঠিয়েছেন শীর্ষক শিরোনামের একটি তথ্য গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে এসেছে।

উক্ত দাবিতে গণমাধ্যমে প্রকাশিত কিছু প্রতিবেদন দেখুন ঢাকা পোস্ট, একাত্তর টিভি (ইউটিউব), চ্যানেল আই, বাংলা২৪ লাইভ নিউজপেপার, ফ্রিডম বাংলা নিউজ, এনটিভি

Screenshot source: NTV

কোনো কোনো গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে উক্ত জার্সিতে মেসির অটোগ্রাফ ছিল বলেও দাবি করা হয়েছে।

Screenshot source: Channel I 

একাত্তর টিভির ফেসবুক পেজে চ্যানেলটির পক্ষ থেকে একটি কমেন্টে বলা হয়েছে, “মতিনের ভালোবাসায় মুগ্ধ মেসি।”

Screenshot source: Facebook 

একই দাবিতে ফেসবুকের কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

Screenshot source: Facebook 

একই দাবিতে ইউটিউবের কিছু ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

Screenshot source: Youtube  

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ফেনীর মতিনকে মেসির সাইন করা জার্সি পাঠানোর দাবিটি সঠিক নয় বরং তাকে আর্জেন্টিনা সরকারের পক্ষ থেকে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জার্সি উপহার দিয়েছেন। 

৪৫ বছর পর গত ২৭ ফেব্রুয়ারি আবার বাংলাদেশে চালু হয়েছে আর্জেন্টিনার দূতাবাস। উদ্বোধনী আয়োজনে সেদিন আর্জেন্টিনা সরকারের আমন্ত্রণে ঢাকায় এসেছিলেন ফেনীর আবদুল মতিন। মতিন ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে আর্জেন্টিনার পতাকা লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে দুই হাত-দুই পা হারান মতিন। তার প্রতি সম্মান জানাতে দূতাবাস উদ্বোধনের সময় তাঁকে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের একটি জার্সি উপহার দিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো। 

এই ঘটনার পর গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উক্ত জার্সিতে মেসির সাইন বা অটোগ্রাফ ছিল এবং জার্সিটি মেসি মতিনকে পাঠিয়েছেন দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।  

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে আবদুল মতিনের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে গত ০১ মার্চ প্রকাশিত একটি পোস্টে তাকে আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো কর্তৃক উপহার প্রদানের ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। ছবির ক্যাপশনে মতিন লিখেছেন, “আমাকে জার্সি উপহার দিচ্ছেন আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়েরাে (ডানের জন) অনেক বড় একটা পাওয়া আমার জন্য।”

Screenshot source: Facebook  

অর্থাৎ, পোস্টে মেসি কর্তৃক বা মেসির পক্ষ থেকে জার্সি উপহার দেওয়া হয়েছে শীর্ষক কোনো তথ্য নেই। 

পরবর্তীতে টুইটারে আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারোর টুইটার অ্যাকাউন্টে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত একটি টুইট ভিডিও খুঁজে পেয়েছি আমরা। 

বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে দেওয়া উক্ত ভিডিওতে মতিনকে আর্জেন্টিনার জার্সি উপহার দিচ্ছেন ক্যাফিয়ারো এমন দৃশ্যও দেখা যায়। তবে শুধু মতিন নয়, একাধিক ব্যক্তিকেও একই রকম জার্সি উপহার দেওয়ার দৃশ্য দেখা যায় ভিডিওতে। 

মতিনকে জার্সি উপহার দিচ্ছেন সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো। Screenshot source: Twitter

অন্য ব্যক্তিকে জার্সি উপহার দিচ্ছেন সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো। Screenshot source: Twitter

তবে জার্সিতে মেসির অটোগ্রাফ দেখা যায়নি এবং জার্সিটি মেসি পাঠিয়েছেন শীর্ষক কোনো তথ্যও ভিডিওতে উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

অনুসন্ধানে দেখা যায়, গত ০৪ মার্চ জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো’র ওয়েবসাইটে মতিনের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। 

প্রথম আলো লিখেছে, “আর্জেন্টিনার দূতাবাসের উদ্বোধনী আয়োজনে মতিনকে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের একটি জার্সি উপহার দিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো।”

Screenshot source: Prothom Alo

গত ০১ মার্চ জাতীয় আরেক দৈনিক সমকাল পত্রিকার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে মতিনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, “আপনারা শুধু মেসির কাছে আমার নামটি পৌঁছে দিয়েন। তাঁকে বলে দিয়েন, বাংলাদেশে তাঁর এক ভক্ত কতটা ভালোবাসে তাঁকে। মেসি যদি তা শুনে কোনো দিন আমার খোঁজ করেন, তাতেই আমার জীবন ধন্য হয়ে যাবে।” 

মতিনের এই বক্তব্যের বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, মেসি যদি মতিনের জন্য জার্সি উপহার পাঠাতেন তাহলে অবশ্যই তিনি মতিনের বিষয়ে জানতেন। কিন্তু এই বক্তব্য থেকে এটা স্পষ্ট যে, মেসি মতিন সম্পর্কে অবগত নন। 

পরবর্তীতে এ বিষয়ে জানতে রিউমর স্ক্যানার টিম আবদুল মতিনের সাথে যোগাযোগ করেছিল। 

আবদুল মতিন রিউমর স্ক্যানারকে বলেছেন, “এটা মেসির জার্সি না। এটা ওই দেশের (আর্জেন্টিনা) সরকার দিয়েছে। এটায় মেসির সাইনও (অটোগ্রাফ) নেই।”

এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে দূতাবাস উদ্বোধনের দিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এমন কারো সাথে যোগাযোগের উদ্দেশ্যের প্রেক্ষিতে দূতাবাসস্থলে মতিনের ২৭ ফেব্রুয়ারির একটি ফেসবুক লাইভে এক ব্যক্তিকে দেখতে পাই আমরা। মতিন সেসময় বলছিলেন, তার (উক্ত ব্যক্তির) আমন্ত্রণে তিনি সেখানে গিয়েছেন। 

অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত ব্যক্তির নাম সেবাস্তিয়ান গুবিয়া। তিনি আর্জেন্টাইন অ্যাথলেট এবং দেশটির ফুটবল ক্লাব Gimnasia de La Plata দলের মুখপাত্র। সূত্র বলছে, সেবাস্তিয়ানই বাংলাদেশের একাধিক আর্জেন্টাইন ফ্যানের সাথে যোগাযোগ করে ঢাকায় দূতাবাস উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে যোগদানের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন৷ 

সেবাস্তিয়ানের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ওই অনুষ্ঠানের একাধিক ছবি দেখেছি আমরা। একটি পোস্টে মতিনের সাথেও ছবি দেখতে পেয়েছি আমরা। 

Screenshot collage: Rumor Scanner 

সেবাস্তিয়ানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনিও নিশ্চিত করেছেন, জার্সিগুলো মেসি নয়, দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো। 

মূলত, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ফের বাংলাদেশে চালু হয় আর্জেন্টিনার দূতাবাস। ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে আর্জেন্টিনার পতাকা লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে দুই হাত-দুই পা হারানো ফেনীর আবদুল মতিনও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। তার প্রতি সম্মান জানাতে দূতাবাস উদ্বোধনের সময় তাঁকে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের একটি জার্সি উপহার দেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়ারো। এর প্রেক্ষিতে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উক্ত জার্সিতে মেসির অটোগ্রাফ ছিল এবং জার্সিটি মেসি মতিনকে পাঠিয়েছেন দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। কিন্তু অনুসন্ধানে দেখা যায়, মেসি নয়, জার্সিটি মতিনকে আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রীই দিয়েছেন তার সরকারের পক্ষ থেকে। তাছাড়া, জার্সিতে মেসির সাইন বা অটোগ্রাফও ছিল না। 

সুতরাং, ফেনীর আবদুল মতিনকে আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কর্তৃক জার্সি উপহারের ঘটনাকে মতিনের জন্য মেসি উক্ত জার্সিতে অটোগ্রাফ দিয়ে পাঠিয়েছেন শীর্ষক দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img