শুক্রবার, জুলাই 26, 2024
spot_img

পিটার হাস কর্তৃক নির্বাচন বাতিল করার গুজব

সম্প্রতি, “বৈঠক করে নির্বাচন বাতিল করলো পিটার হাস, একি ঘটালো যুক্তরাষ্ট্র হায় হায়”- শীর্ষক থাম্বনেইলে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভিডিওটিতে দাবি করা হচ্ছে, বৈঠক করে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল ঘোষণা করেছে ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

পিটার হাস

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, পিটার হাস আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন বাতিল ঘোষণা করেননি বরং অধিক ভিউ পাবার আশায় চটকদার শিরোনাম ও থাম্বনেইল ব্যবহার করে নির্ভরযোগ্য কোনো তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

ভিডিও যাচাই- ১

ভিডিওর প্রথম অংশে একজন সংবাদ পাঠিকাকে সংবাদ পাঠ করতে দেখা যায় এবং ভিডিওটিতে দেশীয় গণমাধ্যম ‘কালবেলা’র লোগো দেখা যায়। লোগো’র সূত্র ধরে অনুসন্ধানে কালবেলা’র ইউটিউব চ্যানেলে গত বছরের ৩১ অক্টোবর “নির্বাচন কমিশনারের সাথে কী কথা হলো পিটার হাসের” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও সংবাদ প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত সংবাদ প্রতিবেদনে থাকা সংবাদ পাঠিকা এবং পাঠ করা সংবাদের সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে থাকা পাঠিকা এবং পাঠ করা সংবাদের হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison: Rumor Scanner

উক্ত সংবাদ প্রতিবেদনটি পর্যবেক্ষণ করে জানা যায়, ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করছেন। ৩১ অক্টোবর সকাল ১০টার দিকে নির্বাচন কমিশনে পৌঁছান পিটার হাস। 

তবে, সংবাদ প্রতিবেদনটিতে নির্বাচন বাতিলের কোনো তথ্য উল্লেখ করা হয়নি। তাছাড়া, দুই মাস এ সংক্রান্ত ভিডিওটি ছড়ানো হয়েছে। এর মধ্যে নির্বাচন বাতিল সংক্রান্ত কোনো খবর গণমাধ্যমে আসেনি।

ভিডিও যাচাই- ২

আলোচিত ভিডিওটির এই অংশে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালকে বক্তব্য দিতে দেখা যায় এবং বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘নিউজ২৪’ এর লোগো দেখা যায়। সেই লোগো’র সূত্র ধরে অনুসন্ধানে নিউজ২৪ এর ইউটিউব চ্যানেলে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর “কার কাছে দায়বদ্ধ ইসি? নির্বাচনে বাংলাদেশ” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

৪০ মিনিট ৪৩ সেকেন্ডের উক্ত ভিডিওটির ২ মিনিট সময় থেকে সিইসি’র দেওয়া বক্তব্যের সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে দেওয়া বক্তব্যের সাথে হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison: Rumor Scanner

উক্ত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে জানা যায়, ৩০ ডিসেম্বর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া সিলেটের ৩৫ প্রার্থীর সঙ্গে মতবিনিময় এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। 

তিনি বলেন, নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করছে, এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তবে তারা নির্বাচন প্রতিহত করতে চাইলে সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে প্রস্তুতি রয়েছে।

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে প্রার্থীদের অভিযোগ একেবারেই নগণ্য। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথ দায়িত্ব পালন করলে ভোটারদের আস্থা ফিরে আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবারের নির্বাচন বিশ্বাসযোগ্য হবে, কোনও পক্ষপাতমূলক আচরণ হবে না। যেকোনও মূল্যে নির্বাচন নিরপেক্ষ হতেই হবে। ৭ জানুয়ারি ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ কমানো হবে না। তবে কেউ মিথ্যা তথ্য ছড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

অর্থাৎ, সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল ৭ জানুয়ারির নির্বাচন বন্ধ করা প্রসঙ্গে কোনো তথ্য দেননি। 

এছাড়া, মতবিনিময় সভায় দেওয়া সিইসি’র দীর্ঘ বক্তব্যের কিছু অংশ কেটে আলোচিত ভিডিওটিতে যুক্ত করে প্রচার করা হয়েছে।  

ভিডিও যাচাই- ৩

ভিডিওটির তৃতীয় ক্লিপে জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) এর চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজকে বক্তব্য দিতে দেখা যায় এবং ভিডিওটিতে ‘ফেস দ্যা পিপল’ শীর্ষক একটি লোগো দেখা যায়। সেই লোগো’র সূত্র ধরে অনুসন্ধানে Face The People নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর “মৃত কয়েদির হাতপায়ে ডাণ্ডাবেড়ি কেন? বিএনপি জামাতের রাজনীতি করার অধিকার নাই: প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক শিরোনামে একটি একটি টকশো (আর্কাইভ) খুঁজে পাওয়া যায়। ১ ঘন্টা ৩২ মিনিট ১০ সেকেন্ডের টকশোটির ৩৪ মিনিট থেকে জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) এর চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজের দেওয়া বক্তব্যের সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে থাকা বক্তব্যের হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত টকশোটি পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, ৩৪ মিনিটের পর থেকে জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) এর চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ সঞ্চালকের করা এক প্রশ্নের জবাবে বর্তমান সরকারের সমালোচনা করে বক্তব্যটি দেন। 

এছাড়া, পুরো টকশোতে ববি হাজ্জাজকে বা টকশোতে থাকা অন্যান্য অতিথিদের কাউকেই আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধের ঘোষণা সংক্রান্ত কোনো তথ্য উল্লেখ করতে দেখা যায়নি। 

ভিডিও যাচাই- ৪

এই অংশে একজনকে বক্তব্য দিতে দেখা যায়। কিন্তু ভিডিওটির মূল উৎস খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে, ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে জানা যায়, বক্তা আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন দেশের অবস্থান নিয়ে আলোচনা করছেন এবং বাংলা ইনসাইডার এর ওয়েবসাইটে “নির্বাচন নিয়ে পশ্চিমাদের পাঁচ প্রশ্ন” (আর্কাইভ) শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন নিয়েও আলোচনা করতে দেখা যায়।

Screenshot: YouTube Claim 

ভিডিওটিতে বক্তাকে আলোচিত দাবিটি নিয়ে কোনো তথ্য উপস্থাপন বা কথা বলতে শোনা যায়নি। 

এছাড়া, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধের ঘোষণা এসেছে কি না এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে রিউমর স্ক্যানার টিম। অনুসন্ধানে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করলে গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

মূলত, গত বছরের ৩১ অক্টোবর প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) সাথে বৈঠক করেন ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস। এরই মধ্যে ইন্টারনেটে “বৈঠক করে নির্বাচন বাতিল করলো পিটার হাস” শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত দাবিটি সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে, গত বছরের অক্টোবরে সিইসি’র সাথে পিটার হাসের বৈঠকের প্রেক্ষিতে করা একটি সংবাদের সাথে সিইসি’র সিলেটের অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভার একটি ভিডিও এবং ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার একাধিক ভিডিও কেটে তা ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় যুক্ত করে ভিন্ন দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, আগামী ৭ জানুয়ারি রোববার ভোটগ্রহণের দিন রেখে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল। 

সুতরাং, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধ করেছে পিটার হাস- শীর্ষক দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img