সিরাজগঞ্জে যমুনার নদীর পানি বৃদ্ধির পুরোনো ভিডিওকে সিলেটে বন্যার পরিস্থিতির ভিডিও দাবিতে প্রচার

সম্প্রতি “সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ ধারন করেছে। জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট কানাইঘাট, জকিগঞ্জ এই উপজেলাগুলোর লক্ষ- লক্ষ মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছে” শীর্ষক  শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারতি এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময় সিলেটের বন্যা পরিস্থিতির নয় বরং এটি প্রায় ২ বছর পূর্বে সিরাজগঞ্জে যমুনায় পানি বৃদ্ধিতে নদীভাঙনের সময় ধারণকৃত ভিডিও। 

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, “Md. Saiful Islam” নামের ফেসবুক একাউন্টে ২০২০ সালের ২৪ জুলাই “সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সিমলায় মুহুত্বের মধ্যেই বিলীন অর্ধশত ঘরবাড়ি (আর্কাইভ এখানে)” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সময় টিভির লোগো সম্বলিত একটি ভিডিও প্রতিবেদনের সাথে প্রচারিত ভিডিওর মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, “RASAL MD ….excavated machine Operators” নামের ইউটিউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ২৬ জুলাইয়ে “সিরাজগঞ্জের সিমলায় অর্ধশত বাড়ী ঘর নদী গর্ভে বিলীন © সময় টিভি” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সময় টিভির একই ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

এছাড়াও “সমকাল নিউজ আপডেট” নামের ফেসবুক গ্রুপে ২০২০ সালের ২৫ জুলাইয়ে “সিরাজগঞ্জের সিমলায়’ মুহূর্তের মধ্যেই বিলীন অর্ধশত ঘরবাড়ি (আর্কাইভ এখানে)” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একই ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

সিরাজগঞ্জ

মূলত, গত ১০ মে থেকে সিলেটে ভারী বর্ষণ শুরু হয়। সেই সাথে উজান থেকে নেমে আসে পাহাড়ি ঢলের ফলে ১১ মে থেকেই সিলেটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত  হয়। জেলার শতাধিক ইউনিয়নের মধ্যে প্রায় ৯০টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। এক এক করে সড়ক থেকে বাসাবাড়ি, সরকারি স্থাপনা, দোকানপাট থেকে শুরু করে সব জায়গায় বন্যার পানি ঢুকতে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে  ২০২০ সালে সিরাজগঞ্জে যমুনায় পানি বৃদ্ধিতে নদীভাঙনের সময় ধারণকৃত ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে সিলেটের বন্যার পানির ভয়াবহ পরিস্থিতি দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালে ২৫ জুলাইয়ে যমুনা নদীর পানি সিরাজগঞ্জ হার্ড পয়েন্টে বিপৎসীমার ৮৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। প্রবল বৃষ্টিতে জেলার নদ–নদীগুলোতে পানি অব্যাহতভাবে বাড়তে থাকায় লোকালয়ে পানি ঢুকে পড়ে এতে প্লাবিত হয় রাস্তাঘাট, বসতঘর। পানির প্রবল স্রোতে হঠাৎ সিমলা স্পার বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় যমুনার স্রোতে নদীভাঙন শুরু হয়। 

সুতরাং, ২০২০ সালে সিরাজগঞ্জে যমুনায় পানি বৃদ্ধিতে নদীভাঙনের সময় ধারণকৃত ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে সিলেটের বন্যার ভয়াবহ পরিস্থিতির দৃশ্য দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img