শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

রিশাদকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে কোনো লাইভ করেননি শাহরুখ খান

সম্প্রতি, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে রিশাদ হোসেনের পারফরমেন্স দেখে শাহরুখ খান তাকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার জন্যে লাইভে এসে তাকে অনুরোধ করেছেন শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

আইপিএলে

ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন  এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

টিকটকে প্রচারিত এমন ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ইউটিউবে প্রচারিত এমন ভিডিও ‍দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি টিকটকে প্রচারিত উক্ত দাবির ভিডিওই দেখা হয়েছে প্রায় ৪ লাখ ৩ হাজার ৭১৪ বার। এছাড়াও ভিডিওটিতে প্রায় ৩১ হাজার ৯২৫ পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়াও দেখানো হয়েছে। পাশাপাশি ভিডিওটি ২৩৭ বার শেয়ার করা হয়েছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, বাংলাদেশি ক্রিকেটার রিশাদ হোসেনকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার জন্যে লাইভে এসে শাহরুখ খানের অনুরোধ করার দাবিটি সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে, করোনাকালীন সময়ে জনসাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অ্যাকাউন্টগুলোতে প্রচারিত একটি ভিডিওর কিছু অংশের সাথে রিশাদ হোসেনের কিছু ছবি যুক্ত করে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীনভাবে আলোচিত দাবির ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে ভিডিওটির শুরুতে শাহরুখ খানকে হাত জোড় করে ‘আমি সব মানুষের কাছে আবেদন করছি…পরবর্তী দশ দিন’ শীর্ষক কথা বলতে শোনা যায়। পরবর্তীতে ভিডিওটির উপস্থাপককে দাবি করেন, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ওয়ানডে সিরিজে রিশাদ হোসেনের ব্যাটিং পারফরমেন্স দেখে লাইভে এসে তাকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার জন্যে অনুরোধ জানান শাহরুখ খান। এসময় তিনি রিশাদকে উদ্দেশ্য করে ‘রিশাদের এমন ব্যাটিং সত্যি আমাকে মুগ্ধ করেছে। আন্দ্রে রাসেল, নারিনদের মতই খেলার স্টাইল তার। বাংলাদেশিদের মধ্যে হার্ড হিটার ব্যাটিংয়ে আমি তাকেই এগিয়ে রাখবো।’ শীর্ষক মন্তব্য করেছেন বলেও দাবি করেন ভিডিওটির উপস্থাপক। 

আলোচিত দাবির সত্যতা যাচাইয়ে ভিডিওটির শুরুতে দেখানো শাহরুখ খানের ক্লিপটির কয়েকটি কী-ফ্রেম রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে বলিউড তারকা শাহরুখ খানের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে ২০২০ সালের ২০ মার্চ Let’s get together and fight this #WarAgainstVirus. শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Facebook 

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওর শুরুতে দেখানো শাহরুখ খানের ক্লিপের সাথে ‍উক্ত ক্লিপের শুরুর অংশের হুবহু মিল রয়েছে। দুটো ভিডিওতেই তাকে একই স্থানে একই পোশাকে হাত জোড় করে দর্শকদের উদ্দেশ্যে কথা বলতে দেখা যায়। 

Video Comparison by Rumor Scanner 

পাশাপাশি ভিডিওটি পর্যালোচনার মাধ্যমে জানা যায়, মূলত করোনাকালীন সময়ে জনসাধারণকে সচেতনতার উদ্দেশ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে উক্ত ভিডিওটি তিনি প্রচার করেন। যার সাথে আলোচিত দাবির কোনো সর্ম্পক নেই। 

পরবর্তীতে কলকাতা নাইট রাইডার্স-এর মালিক শাহরুখ খান রিশাদকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেছেন কিনা জানতে বিভিন্ন কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়েও গণমাধ্যম কিংবা কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

মূলত, গত ১৮ মার্চ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আয়োজিত হয় বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচ। উক্ত ম্যাচে ৫৮ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে জয়ের মাধ্যমে ২-১ ব্যবধানে সিরিজে জয় লাভ করে বাংলাদেশ। ম্যাচটিতে রিশাদ হোসেন মাত্র ১৮ বলে পাঁচটি চার এবং চারটি ছয় হাকিয়ে মোট ৪৮ রান করেন। দুর্দান্ত এই পারফরমেন্সে ইন্টারনেট দুনিয়ায় প্রসংশার জোয়াড়ে ভাসছেন তিনি। এরই প্রেক্ষিতে সম্প্রতি, তার পারফরমেন্স দেখে শাহরুখ খান তাকে আইপিএলে নিজের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সে নেওয়ার জন্যে লাইভে এসে তাকে অনুরোধ করেছেন দাবিতে ‘যেকোনো মূল্যে রিশাদকে আমার দলে খেলতে হবে! রিশাদের ব্যাটিং দেখে লাইভে এসে শারুখ খানের অনুরোধ’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত দাবিটি সত্য নয়। প্রকৃতপক্ষে, করোনাকালীন সময়ে জনসাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে শাহরুখ খান তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অ্যাকাউন্টগুলোতে একটি ভিডিও প্রচার করেন। উক্ত ভিডিওর কিছু অংশের সাথে রিশাদ হোসেনের কিছু ছবি যুক্ত করে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীনভাবে আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, বাংলাদেশি ক্রিকেটার রিশাদ হোসেনকে আইপিএলে নিজের দলে নেওয়ার জন্যে শাহরুখ খান লাইভে এসে অনুরোধ জানিয়েছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img