শুক্রবার, জুলাই 26, 2024
spot_img

বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সবাইকে ৫ হাজার টাকা বোনাস দেওয়ার গুজব

সম্প্রতি, বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বিকাশ দিচ্ছে সবাইকে ৫০০০ টাকা বোনাস শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

বোনাস

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বিকাশ সবাইকে ৫ হাজার টাকা করে বোনাস দেওয়ার কোনো ঘোষণা দেয়নি বরং ভুয়া ওয়েবসাইট তৈরি করে প্রতারণার উদ্দেশ্যে বোনাস প্রদানের এই প্রলোভন দেখানো হচ্ছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত পোস্টগুলোতে থাকা ওয়েবসাইট লিংকগুলোতে প্রবেশ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। 

একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশের শুরুতে ওয়েবসাইটের ভেতরে “বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিকাশ দিচ্ছে ৮,৯৯৯ টাকা উপহার” দেওয়া ঘোষণাটি লক্ষ্য করে রিউমর স্ক্যানার টিম। 

ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করে একটু নিচে স্ক্রল করলেই টাকা পাওয়ার জন্য একটি ফর্ম পূরণ করে জমা দিতে বলা হয়। ফর্মটিতে নাম, জেলা, কতদিন যাবৎ বিকাশ ব্যবহারকারী, এই মূহুর্তে (ফর্ম পূরণ করার মুহূর্তে) বিকাশ অ্যাকাউন্টে কত টাকা আছে, বিকাশের সেবা নিয়ে নিজের মন্তব্য, লিঙ্গ এসব তথ্য জানতে চাওয়া হয়। রিউমর স্ক্যানার টিমের একজন অনুসন্ধানকারী নিরাপত্তাজনিত কারণে ভুল তথ্য দিয়ে উক্ত ফর্ম পূরণ করে জমা দিলে এটি আরেকটি নতুন পেজে নিয়ে যায়।

Screenshot : Scamming website

উক্ত নতুন পেজটিতে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় লক্ষ্য করে রিউমর স্ক্যানার টিম। নতুন পেজের ইন্টারফেসটি হুবহু বিকাশে পেমেন্ট করার ইন্টারফেসের মতো। তাছাড়া, দাবি অনুসারে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারীর ৫ হাজার বা ৮,৯৯৯ টাকা পাওয়ার কথা থাকলেও নতুন ইন্টারফেসটি হচ্ছে কাউকে টাকা পেমেন্ট করার ইন্টারফেস। 

অধিকন্তু, এখানে পেমেন্ট গেটওয়ের জায়গায় বিকাশ বা বিকাশের মালিকানাধীন কোনো নামের বদলে “Sayma Enterprise” নামটি দেখা যায়৷ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, পূর্ববর্তী ফর্মে নিজের বিকাশ অ্যাকাউন্টে আছে হিসেবে উল্লেখ করা ২২,৫০০ টাকাই এখানে পেমেন্টের পরিমাণ। এরপর বিকাশ অ্যাকাউন্ট নাম্বার চাওয়া হয়। 

Screenshot : Bkash payment page, redirected from Scamming website

এ পর্যায়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারী বিকাশহীন নিজের একটি নাম্বার দিলে “Not a customer Wallet” লেখাটি প্রদর্শন করে, যা প্রমাণ করে এটি বিকাশের আসল পেমেন্ট পেজেই নিয়ে এসেছে৷ তাছাড়া এ বিষয়ে বিকাশের ডোমেইন নাম দেখেও নিশ্চিত হওয়া যায়৷ 

তারপর সঠিক বিকাশ নাম্বার দিলে ওটিপি এবং পরবর্তীতে পাসওয়ার্ড চাওয়া হয়৷ অর্থাৎ, বিকাশ নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড ঠিকভাবে বসালে অ্যাকাউন্টে থাকা তথা ফর্মে উল্লেখ করা টাকা প্রতারকের অ্যাকাউন্টে চলে যাবে। কিন্তু, নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারী এর পরবর্তী ধাপগুলো সম্পন্ন করেন নি। 

উক্ত ফর্মের উপর আরেকটি তথ্য দেখতে পাওয়া যায় যেখানে লেখা রয়েছে, “সতর্কতা: যদি আপনার বিকাশে 5 হাজার টাকা এর বেশি থাকে তাহলে এখানে ক্লিক করুন।” ”এখানে ক্লিক করুন” শব্দগুচ্ছ অন্য আরেকটি পেজের লিঙ্কের সাথে হাইপারলিঙ্ক করা অবস্থায় লক্ষ্য করা যায়৷ 

“এখানে ক্লিক করুন” লিঙ্কে ক্লিক করলে এটি বিকাশের শপ পেজে নিয়ে যায়। তবে সেখানে “Payment Page not found” প্রদর্শিত হয়।

পরবর্তীতে একই দাবিতে প্রচারিত অন্য আরেকটি পোস্টে থাকা ওয়েবসাইট লিঙ্কে প্রবেশ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ওয়েবসাইটের ভেতরে “আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে বিকাশ দিচ্ছে দেশের সবাইকে ২৫ হাজার টাকা ঈদ সালামী বোনাস।” ঘোষণাটি লক্ষ্য করে রিউমর স্ক্যানার টিম।

ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করে একটু নিচে স্ক্রল করলেই টাকা পাওয়ার জন্য একটি ফর্ম পূরণ করে জমা দিতে বলা হয়। ফর্মটিতে নাম, জেলা, কতদিন যাবৎ বিকাশ ব্যবহারকারী, এই মূহুর্তে (ফর্ম পূরণ করার মুহূর্তে) বিকাশ অ্যাকাউন্টে কত টাকা আছে এসব তথ্য জানতে চাওয়া হয়।

রিউমর স্ক্যানার টিমের একজন অনুসন্ধানকারী নিরাপত্তাজনিত কারণে ভুল তথ্য দিয়ে উক্ত ফর্ম পূরণ করে জমা দিলে এটি আরেকটি নতুন পেজে নিয়ে যায়। 

Screenshot : Scamming website

উক্ত নতুন পেজটিতে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় লক্ষ্য করে রিউমর স্ক্যানার টিম। নতুন পেজের ইন্টারফেসটি হুবহু বিকাশে পেমেন্ট করার ইন্টারফেসের মতো। তাছাড়া, দাবি অনুসারে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারীর ৫ হাজার বা ২৫ হাজার টাকা পাওয়ার কথা থাকলেও নতুন ইন্টারফেসটি হচ্ছে কাউকে টাকা পেমেন্ট করার ইন্টারফেস। অধিকন্তু, এখানে পেমেন্ট গেটওয়ের জায়গায় বিকাশের আওতাধীন কোনো কিছুর বদলে “Amar Shop” নামটি দেখা যায়৷ এখানেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, পূর্ববর্তী ফর্মে নিজের বিকাশ অ্যাকাউন্টে আছে হিসেবে উল্লেখ করা ১৭,৬০০ টাকাই এখানে পেমেন্টের পরিমাণ। এরপর বিকাশ অ্যাকাউন্ট নাম্বার চাওয়া হয়।

Screenshot : Bkash payment page, redirected from Scamming website

এ পর্যায়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারী বিকাশহীন নিজের একটি নাম্বার দিলে “Not a customer Wallet” লেখাটি প্রদর্শন করে, যা প্রমাণ করে এটি বিকাশের আসল পেমেন্ট পেজেই নিয়ে এসেছে৷ তাছাড়া এ বিষয়ে বিকাশের ডোমেইন নাম দেখেও নিশ্চিত হওয়া যায়৷ 

তবে, উক্ত একই ফর্ম এক ঘন্টা পর পর পুনরায় দুইবার পূরণ করলে এবার পেমেন্ট গেটওয়ের জায়গায় যথাক্রমে “Hasina Shop” ও “Maleka Store” নামে ভিন্ন দুইটি নাম দেখা যায়। তবে আগের বারের মতো এবারও বিকাশ অ্যাকাউন্টে সর্বমোট উল্লেখ করা টাকার পরিমাণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেমেন্টের পরিমাণে চলে আসে।

Screenshot : Bkash payment page, redirected from Scamming website

তারপর সঠিক বিকাশ নাম্বার দিলে ওটিপি এবং পরবর্তীতে পাসওয়ার্ড চাওয়া হয়৷ অর্থাৎ, বিকাশ নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড ঠিকভাবে বসালে অ্যাকাউন্টে থাকা তথা ফর্মে উল্লেখ করা টাকা প্রতারকের অ্যাকাউন্টে চলে যাবে। কিন্তু, নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানকারী এর পরবর্তী ধাপগুলো সম্পন্ন করেন নি।

উক্ত ফর্মের উপর আরেকটি তথ্য দেখতে পাওয়া যায় যেখানে লেখা রয়েছে, “সতর্কতা: যদি আপনার বিকাশে 30 হাজার টাকা এর বেশি থাকে তাহলে এখানে ক্লিক করুন।” ”এখানে ক্লিক করুন” শব্দগুচ্ছ অন্য আরেকটি পেজের লিঙ্কের সাথে হাইপারলিঙ্ক করা অবস্থায় লক্ষ্য করা যায়৷

Screenshot : Scamming website

“এখানে ক্লিক করুন” লিঙ্কে ক্লিক করলে এটি বিকাশের শপ পেজে নিয়ে যায়। তারপর সেখানে নিজের নাম লিখে Pay Now বাটনে ক্লিক করতে বলা হয়।

Screenshot : Scamming website

খালি স্থানে মনগড়া একটি শব্দ বসিয়ে Pay Now এ ক্লিক করলে এটি আগের মতোই পেমেন্ট পেজে নিয়ে যায়। তারপর আগের মতোই বিকাশ নাম্বার চাওয়া হয়। তবে, এবার টাকার পরিমাণ ৩০,০০০ এবং নাম হিসেবে দেখা যায় “Amar Shop”। অর্থাৎ, বিকাশ নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড ঠিকভাবে দিলে অ্যাকাউন্টে থাকা ৩০,০০০ টাকা প্রতারকের অ্যাকাউন্টে চলে যাবে।

Screenshot : Bkash payment page, redirected from Scamming website

তাছাড়া, বিকাশ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে ২০১১ সালের ২১ জুলাই। বিকাশ প্রতিষ্ঠার ১৩ বছরও পূর্তি হয়নি এখনও। ১৫ বছর পূর্তি হবে ২০২৬ সালে। তাই বর্তমানে ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে উপহার দেওয়ার দাবিটিও অবান্তর।

অতঃপর, বিকাশ এমন কোনো বোনাস দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কিনা সে বিষয়ে অনুসন্ধান করতে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে গণমাধ্যম ও বিশ্বস্ত সূত্রে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে ১২ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ২০২৩ সালে শর্তসাপেক্ষে ক্যাশব্যাক অফারের ঘোষণা দিয়েছিল বিকাশ। যেসব গ্রাহক ২০২২ সালের ২১ জুলাই কিংবা তার আগে বিকাশে রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তারা নির্দিষ্ট শর্তাবলি পূরণ সাপেক্ষে ১০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক উপভোগ করার সুযোগ ছিল! এছাড়া, ৫০০০ বা ২৫০০০ টাকার কোনো বোনাসের ঘোষণা বিকাশের তরফ থেকে দেওয়া হয়নি।

মূলত, ২০২৩ সালে বিকাশের এক যুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে বিকাশ শর্তসাপেক্ষে ১০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক অফারের ঘোষণা দিয়েছিল। উক্ত অফার ছাড়া, বিকাশের তরফ থেকে সবাইকে ৫০০০, ৮৯৯৯ কিংবা ২৫০০০ টাকা দেওয়ার কোনো বোনাসের ঘোষণা দেওয়া হয়নি। কিন্তু, সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দাবি প্রচার করা হচ্ছে, বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সবাইকে ৫০০০ টাকা উপহার দেওয়া হবে। উক্ত দাবিতে ব্যবহৃত লিঙ্কে ক্লিক করলে এটি টাকা দেওয়ার বদলে বরং অ্যাকাউন্টে থাকা সব টাকা পেমেন্ট হিসেবে নেওয়ার চেষ্টা করে। প্রকৃতপক্ষে, বিকাশ এমন কোনো ঘোষণা দেয়নি। তাছাড়া, বিকাশের প্রতিষ্ঠার ১৫ বছর পূর্তি হতে এখনও দুই বছরেরও অধিক সময় বাকি।

সুতরাং, বিকাশের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সবাইকে ৫০০০ টাকা বোনাস দেওয়ার দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ বানোয়াট ও প্রতারণামূলক।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img