ধর্ষণ মামলায় নেইমারের হাজিরা দেওয়ার ঘটনাটি সাম্প্রতিক সময়ের নয় 

সম্প্রতি, “ধর্ষণের মামলায় আদালতে হাজিরা নেইমারের” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক 

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ধর্ষণের মামলায় ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকা নেইমারের আদালতে হাজিরা দেওয়ার ঘটনাটি সাম্প্রতিক সময়ের নয় বরং এটি ২০১৯ সালের ঘটনা এবং ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ২০১৯ সালের আগস্ট মাসেই নেইমারকে ধর্ষণ মামলা থেকে মুক্তি দেয় আদালত।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘DBC News’ এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে ২০১৯ সালের ৭ জুনে “ধর্ষণের মামলায় আদালতে হাজিরা নেইমারের” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

এছাড়া, দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘প্রথম আলো’ এর অনলাইন সংস্করণে ২০১৯ সালের ২ জুনে “নেইমারের বিরুদ্ধে এবার ধর্ষণের অভিযোগ” শীর্ষক শিরোনামে এবং ‘DBC News’ এর ওয়েবসাইটে ২০১৯ সালের ৭ জুনে “ধর্ষণের মামলায় আদালতে হাজিরা নেইমারের” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত দুইটি পৃথক প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot from Prothom Alo

মূলত, ২০১৯ সালে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকা নেইমারের বিরুদ্ধে প্যারিসের একটি হোটেলে ধর্ষণের অভিযোগ তোলেন এক নারী মডেল। সেই ধর্ষণের মামলায় নেইমারের হাজিরা দেওয়ার ঘটনা নিয়ে ২০১৯ সালের ৭ জুনে ডিবিসি বাংলায় প্রকাশিত একটি ভিডিও প্রতিবেদনকে সম্প্রতি শেয়ার ও কপি-পেস্ট করার মাধ্যমে পুরোনো এই খবরটি পুনরায় সাম্প্রতিক ঘটনা হিসেবে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রসঙ্গত, নেইমারের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ধর্ষণ মামলায় পর্যাপ্ত পরিমাণ তথ্য প্রমাণ না থাকার কারণে ২০১৯ সালের জুলাই মাসে মামলাটি খারিজ করে দেয় ব্রাজিল পুলিশ। সে সময়ে নেইমারের বিরুদ্ধে দায়ের করা ধর্ষণ মামলা হতে রেহাই পাওয়া নিয়ে দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ প্রচার করা হয়েছে। প্রচারিত সংবাদগুলো দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে। 

Screenshot from BBC news

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের আগস্টে ব্রাজিলের আদালত কর্তৃক আনুষ্ঠানিকভাবে ধর্ষণের অভিযোগ থেকে রেহাই দেওয়া হয় ব্রাজলিয়ান এই তারকাকে। 

বিষয়টি নিয়ে দেশীয় মূলধারার এবং আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদগুলো দেখুন এখানে এবং এখানে। 

অর্থাৎ, ২০১৯ সালের জুনে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় হাজিরা দেওয়ার ঘটনা নিয়ে দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘DBC News’ এর ফেসবুক পেজে প্রচারিত একটি ভিডিও প্রতিবেদনকে সাম্প্রতিক সময়ে শেয়ার এবং কপি-পেস্টের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img