শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

পদ্মায় ডুবে যাওয়া রজনীগন্ধা ফেরিতে থাকা যানবাহনের সংখ্যা নিয়ে ভুল তথ্য গণমাধ্যমে

গতকাল ১৭ জানুয়ারি সকালে কিছু যানবাহন নিয়ে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটের রজনীগন্ধা নামের একটি ফেরি পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ঘাটের কাছে ডুবে গেছে। এ ঘটনায় ডুবে যাওয়া ফেরিতে থাকা যানবাহনের সংখ্যা নিয়ে কতিপয় গণমাধ্যম এবং ফেসবুকের বিভিন্ন আইডি ও পেজে ভিন্ন ভিন্ন সংখ্যা প্রচার হতে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

১৭টি যানবাহন দাবি করে সংবাদ প্রচার করেছে এটিএন বাংলা (ইউটিউব), সময় টিভি (ইউটিউব), দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড, দেশ টিভি, ডিবিসি নিউজ, ভোরের ডাক, দৈনিক বাংলা, বাংলাদেশ মোমেন্টস, জনমত

১৮টি যানবাহন দাবি করে সংবাদ প্রচার করেছে প্রতিদিনের সংবাদ, একাত্তর টিভি, নয়া দিগন্ত, আরটিভি, এশিয়ান টিভি, ঢাকা টাইমস, নিউজ২৪ (ফেসবুক), এটিএন বাংলা (ফেসবুক), দ্য ডেইলি ক্যাম্পাস, আমাদের সময়.কম, ঢাকা প্রকাশ, বাংলাদেশ জার্নাল, জুম বাংলা, দৈনিক শিক্ষা, জনবাণী, দ্য রিপোর্ট লাইভ, সোনালি নিউজ, বিবার্তা২৪, অর্থসংবাদ, (ইউটিউব), খবর সংযোগ

১৭টি যানবাহন দাবি করে সংবাদ প্রচার করলেও পরবর্তী তা সংশোধন করে নেয় আমার সংবাদ। তবে গণমাধ্যমটির সংশোধন পূর্ববর্তী প্রতিবেদনের আর্কাইভ পাওয়া যায়নি।

পদ্মায় ডুবে যাওয়া

১৮টি যানবাহন দাবি করে সংবাদ প্রচার করলে পরবর্তীতে তা সংশোধন করে নেয় ইনকিলাব, যুগান্তর, ডেইলি বাংলাদেশ এবং আজকালের খবর। তবে গণমাধ্যমটির সংশোধন পূর্ববর্তী প্রতিবেদনের আর্কাইভ পাওয়া যায়নি।

১৮টি যানবাহন দাবি করে জনপ্রিয় ইউটিউবার ‘কিটো ভাই’ খ্যাত মাসরুর রাব্বি ইনান এবং জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী জুনায়েদ ইভান ফেসবুক পোস্ট করেছেন। 

এ বিষয়ে গণমাধ্যমের ফেসবুক পেজে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখান (আর্কাইভ)।

একই বিষয়ে গণমাধ্যমের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত কিছু ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ডুবে যাওয়া রজনীগন্ধা ফেরিতে ১৭ কিংবা ১৮টি যানবাহন ছিল না বরং ফেরিটিতে সাতটি ছোট ট্রাক এবং দুইটি বড় ট্রাক মিলিয়ে মোট নয়টি ট্রাক ছিল।

অনুসন্ধানের শুরুতে মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতে ডুবে যাওয়া ফেরিতে থাকা যানবাহনের বিভিন্ন সংখ্যা দেখি আমরা। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় যেসব গণমাধ্যমে সংশ্লিষ্টদের বক্তব্য রয়েছে সেসব গণমাধ্যমের প্রতিবেদন খুঁজে বের করি।

গতকাল ১৭ জানুয়ারি উক্ত দুর্ঘটনার বিষয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি বাংলায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ফায়ার সার্ভিসের বরাতে জানানো হয়েছে, ফেরিতে অন্তত ৯টি পণ্যবাহী ট্রাক ছিল।

অনলাইন গণমাধ্যম বিডিনিউজ২৪ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে আরো বিস্তারিত তথ্য জানতে পারি আমরা। নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে বিডিনিউজ২৪ কে জানায়, ‘ইউটিলিটি ফেরি ‘রজনীগন্ধা’ মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে দৌলতদিয়া থেকে সাতটি ছোট ট্রাক এবং দুটি বড় ট্রাক নিয়ে পাটুরিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়। কিন্তু পাটুরিয়ার কাছাকাছি গিয়ে ঘন কুয়াশার কারণে নদীতে নোঙ্গর করে। সকাল ৮টার দিকে ফেরিটি দুর্ঘটনায় পড়ে।’

অনলাইন গণমাধ্যম বাংলানিউজ২৪ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের মিডিয়া কর্মকর্তা তালহা বিন জসিমের বরাতে জানানো হয়েছে, মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ৫ নম্বর ফেরিঘাটে ডুবে যাওয়া রজনীগন্ধা ফেরিতে ছোট-বড় মিলে মোট ৯টি ট্রাক ছিল।

এছাড়া বিস্তারিত অনুসন্ধানে বেসরকারি টেলিভিশনে চ্যানেল এনটিভির ফেসবুক পেজে উক্ত দুর্ঘটনা বিষয়ক একটি ভিডিও প্রতিবেদন পাই আমরা। উক্ত ভিডিওতে এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তার বক্তব্য দেখতে পাই। তিনি জানান, ফেরিতে সাতটি ছোট ট্রাক এবং দুইটি বড় ট্রাক ছিল। 

তৎক্ষণাৎ কিছু গণমাধ্যম ফেরিতে ১৭টি এবং কিছু গণমাধ্যম ১৮টি যানবাহন ছিল বলে দাবি করলেও পরবর্তীতে অধিকাংশ গণমাধ্যম উক্ত প্রতিবেদনগুলো সংশোধন করে ফেরিতে ছোট-বড় মিলিয়ে মোট ৯টি ট্রাক ছিল বলে উল্লেখ করেছে। 

মূলত, গতকাল ১৭ জানুয়ারি মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় ‘রজনীগন্ধা’ নামের একটি ফেরি ডুবে যায়। ফেরিডুবির এ ঘটনায় তৎক্ষণাৎ সংবাদ প্রচার করতে গিয়ে কতিপয় গণমাধ্যম উক্ত ফেরি ১৭টি এবং অন্য কিছু গণমাধ্যম ১৮টি যানবাহন সহ ডুবে যায় দাবি করে সংবাদ প্রচার করে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিম অনুসন্ধানে দেখেছে, ফেরিতে সাতটি ছোট ট্রাক এবং দুইটি বড় ট্রাক ছিল। নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় এবং ফায়ার সার্ভিস পক্ষ থেকে এই তথ্যটি একাধিক গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছে।

সুতরাং, রজনীগন্ধা ফেরি নয়টি ট্রাকসহ ডুবে গেলেও কতিপয় গণমাধ্যম ফেরিতে ১৭ ও ১৮টি যানবাহন সহ ডুবে যায় দাবি করে সংবাদ প্রচার করা হয়েছে; যা বিভ্রান্তিকর। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img