বুধবার, ফেব্রুয়ারি 28, 2024
spot_img

ফ্রান্স ফুটবলার এমবাপ্পে মুসলিম নন

সম্প্রতি ‘এমবাপ্পে যে মুসলিম এটা আমি আগে জানতাম না‘ শীর্ষক শিরোনামে একটি ছবি সম্বলিত তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ফ্রান্সের ফুটবল খেলোয়াড় কিলিয়ান এমবাপ্পে মুসলমান দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া তথ্যটি সঠিক নয় বরং এমবাপ্পে খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারী।

কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে Vocal Media নামের একটি ওয়েবসাইটে দুই বছর পূর্বে ‘Is Mbappe a Muslim or a Christian? The Religion Of Kylian Mbappe‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

এই প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, কিলিয়ান এমবাপ্পের বাবা খ্রিস্টান ধর্মের ও মা ইসলাম ধর্মের অনুসারী হলেও এমবাপ্পে ইসলাম গ্রহণ করেননি, সুতরাং তার মুসলিম হওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে।

এই প্রতিবেদনটির সূত্রে Gigi V নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৮ সালের ৩ নভেম্বর স্কুল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এমবাপ্পের সাক্ষাৎকারের একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

সাক্ষাৎকারটিতে স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তরে এমবাপ্পে বলেন, তিনি খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারী ও ঈশ্বরে বিশ্বাসী, পাশাপাশি ধর্ম চর্চাও করেন।

এছাড়া খেলাধুলা ভিত্তিক ওয়েবসাইট Spostsmanor এ গত ১৪ ডিসেম্বর ‘Kylian Mbappe’s Religion: What Religion Does the World’s Second-Most Expensive Soccer Player Follow?‘ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এমবাপ্পের বাবা উইলফ্রিদ ধর্মীয় বিশ্বাসে খ্রিস্টান ও ক্যামেরুন বংশোদ্ভূত এবং তার মা ফাইজা লামারি আলজেরিয়ান বংশোদ্ভূত মুসলিম এবং সাবেক হ্যান্ডবল খেলোয়াড়। 

খ্রিস্টান-মুসলিম এই মিশ্র পরিবারে বেড়ে ওঠা এমবাপ্পে ধর্মীয় বিশ্বাস হিসেবে খ্রিস্টান ধর্মই বেছে নিয়েছেন।

অপরদিকে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, এমবাপ্পে মুসলিম দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত দাবিগুলোর সঙ্গে তার যে ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছে সেটিও সাম্প্রতিক সময়ের নয়। বরং ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে পুরো পিএসজি দলের সাথে কাতারে শীতকালীন সফরে গিয়ে এমবাপ্পে নিজেই  টুইটারে তার এই ছবিটি প্রকাশ করেছিলেন। তবে ছবিটিতে তিনি কাতারের পতাকা ও একটি ইমোজি ব্যতীত অন্য কোনো তথ্য প্রদান করেননি।

মূলত, ফ্রান্সের ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপ্পের বাবা উইলফ্রিদ এমবাপ্পে ক্যামেরুন বংশোদ্ভূত খ্রিষ্টান এবং সাবেক হ্যান্ডবল খেলোয়াড় মা ফায়জা লামারি আলজেরিয়ান বংশোদ্ভূত মুসলিম। খ্রিস্টান-মুসলিম এই মিশ্র পরিবারে বেড়ে ওঠা এমবাপ্পে ধর্মীয় বিশ্বাস হিসেবে খ্রিস্টান ধর্মই বেছে নিয়েছেন এবং তিনি এই ধর্মেরই অনুসরণ করেন। তার ধর্মীয় বিশ্বাস নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে এমবাপ্পের স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথোপকথনের একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। যেখানে এমবাপ্পে নিজেই জানান যে, তিনি ঈশ্বরে বিশ্বাসী এবং খ্রিস্টান।

উল্লেখ্য, ভারতীয় ফ্যাক্টচেকিং প্রতিষ্ঠান DFRAC-ও সম্প্রতি তাদের একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদনে এমবাপ্পেকে ধর্মীয় বিশ্বাসে খ্রিস্টান হিসেবেই উল্লেখ করেছে। 

সুতরাং, ফ্রান্সের ফুটবল খেলোয়াড় কিলিয়ান এমবাপ্পে মুসলমান দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img