আইসিসি সাকিবকে আজীবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেনি

সম্প্রতি, “কঠিন দুঃসংবাদ পেল সাকিব! সাকিবকে আজীবন ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা আইসিসির” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

আইসিসি

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে(আর্কাইভ)

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে হামলা চেষ্টা অভিযোগে আইসিসি সাকিব আল হাসানকে আজীবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেনি বরং ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ব্যবহার করে কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় চটকদার শিরোনাম এবং থাম্বনেইল ব্যবহার করে আলোচিত ভিডিওটি প্রচার করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতেই আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওতে আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসন ও ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনের পৃথক দুইটি ভিডিও ক্লিপের পাশাপাশি সাকিব আল হাসান ও সায়েদুল হক সুমনের কয়েকটি ছবি প্রদর্শিত হয়।

ভিডিওটির সংবাদ অংশে দাবি করা হয়, ‘ব্যারিস্টার সমুনকে মারতে যাওয়ার কারণে সাকিবকে আজীবন নিষিদ্ধ আইসিসির’। তবে ভিডিওতে এই দাবির পক্ষে কোনো সূত্র উল্লেখ করা হয়নি।

পরবর্তীতে আলোচিত ভিডিওটিতে থাকা ভিডিও ক্লিপগুলোর বিষয়ে আলাদাভাবে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

ভিডিও যাচাই-১

প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Curent Line এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৯ সালের ৪ মার্চ “ICC rejected BCCI threat letter …David Richardson talks following the ICC Board meetings” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওর একটি অংশের সাথে আলোচিত ভিডিওটির আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসনের বক্তব্যের ফুটেজ অংশের মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Comparison By Rumor Scanner

উক্ত ভিডিওতে ২০১৯ সালের মার্চে আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসনকে আইসিসির বোর্ড সভার পর প্রেস কনফারেন্স বক্তব্য রাখতে দেখা যায়।

উক্ত ভিডিওর সূত্র ধরে Reuters এর ওয়েবসাইটে ২০১৯ সালের ৩ মার্চ “ICC assures members of robust security at World Cup” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত আইসিসির সভা শেষে এক প্রেস কনফারেন্সে আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসন জানান, ২০১৯ বিশ্বকাপে নিরাপত্তার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নিরাপত্তার সকল বিষয় নিশ্চিত করবে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। উক্ত প্রেস কনফারেন্সে ডেভিড রিচার্ডসনকে সাকিবকে নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে দেখা যায়নি।

অর্থাৎ, ভিডিওটি পুরোনো এবং ভিন্ন ঘটনার।

ভিডিও যাচাই-২

প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Barrister Syed Sayedul Haque Suman এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২৩ সালের ১৬ মার্চের একটি ভিডিও(আর্কাইভ) খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওর একটি অংশের সাথে আলোচিত ভিডিওটির সায়েদুল হক সুমনের ফুটেজ অংশের মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Comparison By Rumor Scanner

উক্ত ভিডিওতে ব্যারিস্টার সুমন দাবি করেন, সোনারগাঁ হোটেলে সাকিব আল হাসানের সাথে তার দেখা হলে সাকিব তাকে সর্বসম্মুখে মারতে আসেন।

এই ভিডিওতে সাকিবকে আইসিসির নিষিদ্ধ করার দাবির বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম কিংবা নির্ভরযোগ্য কোনো সূত্র থেকে সাকিব আল হাসানের উপর আইসিসির আজীবন নিষেধাজ্ঞার দাবির সত্যতা জানা যায়নি।

তবে সাকিব আল হাসান কর্তৃক ব্যারিস্টার সুমনকে হামলা চেষ্টার দাবির অভিযোগের বিষয়ে অনুসন্ধানে

ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে ২০২৩ সালের ১৬ মার্চ প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় তিনি সাকিব আল হাসানের দুবাইয়ে গিয়ে আলোচিত স্বর্ণ ব্যবসায়ী আরাভ খানের জুয়েলারি শপ উদ্ভোধন করতে যাওয়ার বিষয়ের সমালোচনা করে সাকিবের বিরুদ্ধে তার (সুমন) ওপর হামলার চেষ্টার অভিযোগ করেন। তবে উক্ত ঘটনায় সেসময় বা পরবর্তীতে ব্যারিস্টার সুমন কোনো ধরণের মামলা করেননি। এছাড়া এ বিষয়ে সেসময় ব্যারিস্টার সুমন কর্তৃক সাকিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিসিবি কিংবা আইসিসির কাছে কোনো অভিযোগ করতে দেখা যায়নি।

মূলত, ২০১৯ সালের মার্চ মাসে আইসিসির বোর্ড সভা শেষে প্রেস কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসন। সেসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপের নিরাপত্তায় সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তার সে বক্তব্যের ভিডিওর অংশবিশেষের সাথে সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে সায়েদুল হক সুমনের অভিযোগ প্রসঙ্গের পুরোনো ভিডিও যুক্ত করেই ব্যারিস্টার সুমনকে হামলা চেষ্টার অভিযোগে আইসিসি সাকিব আল হাসানকে আজীবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়। তবে অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত দাবিটি সঠিক নয়। সাকিব ও সুমনের পুরোনো দ্বন্দ্ব ইস্যুতে আইসিসি কোনো প্রতিক্রিয়াই জানায়নি এবং এ বিষয়ে সাকিবের বিরুদ্ধে সুমন আইসিসিতে অভিযোগ করেছেন এমন কোনো সংবাদই পাওয়া যায়নি।

সুতরাং, ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনকে হামলা চেষ্টার অভিযোগে আইসিসি সাকিব আল হাসানকে আজীবন নিষিদ্ধ করেছে দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img