সিলেটে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের মধ্যে সংঘর্ষ দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পুরোনো

সম্প্রতি, “এইমাত্র, সিলেটে চলছে বিএনপি ও আওয়ামিলীগ এর তুমুল সংঘর্ষ” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ‘সিলেটে বিএনপি ও আওয়ামিলীগ এর তুমুল সংঘর্ষ’ দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ের নয় বরং এটি প্রায় দুই মাস পূর্বে বিএনপির ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সাথে বিএনপি সমর্থকদের সংঘর্ষের সময়ে ধারণকৃত ভিডিও। 

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স সার্চের মাধ্যমে, ‘Andoloner Dake Tareq Rahman’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে চলতি বছরের ১লা সেপ্টেম্বরে “নারায়ণগঞ্জ বিএনপির 44 তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পুলিশের গুলিতে যুবদলকর্মী নিহত” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত অনুরূপ একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

এছাড়া, ‘Kalponik tv’ নামের আরেকটি ইউটিউব চ্যানেলে একই তারিখে “নারায়ণগঞ্জ পুলিশের সাথে বিএনপির সংঘর্ষ নিহত ১” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একই ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

‘সিলেটে বিএনপি ও আওয়ামিলীগ এর তুমুল সংঘর্ষ’ শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে “দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, বিএনপির ৪৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সফল হোক, নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদল” শীর্ষক লেখা সম্বলিত ব্যানার হাতে থাকতে দেখা যায়।

কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধানের মাধ্যমে, ‘BBC NEWS বাংলা’ এর ওয়েবসাইটে গত ১ সেপ্টেম্বরে “বিএনপি: কয়েক জেলায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‍্যালিকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত ১ জন” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রতিবেদনে ‘নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক এলাকায় ব্যাপক সংঘর্ষে জড়ান পুলিশ ও বিএনপি কর্মীরা। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপের পাশাপাশি গুলি করেছে এবং সংঘর্ষ চলাকালে গুলিতে যুবদলের এক কর্মী নিহত হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছে বিএনপি নেতারা’। সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিচুর রহমান মোল্লা বিবিসি বাংলাকে বলেছেন যে অনুমতি না নিয়ে বিএনপি কর্মীরা মিছিল বের করার চেষ্টা করায় পুলিশ বাধা দিয়েছে। “তারা পুলিশের ওপর হামলা করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে যা করা দরকার পুলিশ সেটিই করেছে। তবে কেউ মারা গেছে কি-না তা আমি জানিনা,”।

মূলত, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর ৪৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে চলতি বছরের ১ সেপ্টেম্বরে নারায়ণগঞ্জে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে মিছিল বের করে দলটি। মিছিলের এক পর্যায়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন দলটির নেতা-কর্মীরা। সংঘর্ষে গুলিতে শাওন প্রধান (২০) নামের এক যুবদল কর্মী নিহত হয়েছেন বলেও জানা যায়। গত ১ সেপ্টেম্বরে নারায়ণগঞ্জে বিএনপি নেতা-কর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ চলাকালীন সময়ে ধারণকৃত একটি ভিডিও ‘লাইভ স্ট্রিমিং’ অ্যাপের সহায়তায় ‘লাইভ ভিডিও’ আকারে “সিলেটে চলছে বিএনপি ও আওয়ামিলীগ এর তুমুল সংঘর্ষ” শীর্ষক দাবিতে ফেসবুকে পুনরায় প্রচার করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য,গত সেপ্টেম্বরে নারায়ণগঞ্জে সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে বিএনপির দুই কর্মী নিহত হয়েছে শীর্ষক একটি তথ্য ছড়িয়ে পড়লে সেসময়ে তথ্যটিকে বিভ্রান্তিকর হিসেবে শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

প্রসঙ্গত,  ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে ১৯ নভেম্বর সিলেটে বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তবে, দেশীয় মূলধারার সংবাদমাধ্যমে বা কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাতে সিলেটে কোনো সংঘর্ষ বা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

সুতরাং, বিএনপির ৪৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সাথে বিএনপি কর্মীদের সংঘর্ষের সময়ে ধারণকৃত একটি দৃশ্যকে ‘সিলেটে বিএনপি ও আওয়ামিলীগ এর তুমুল সংঘর্ষ’ দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img