চাতক পাখি শুধু বৃষ্টির পানি পান করে শীর্ষক দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি, “এটা সেই চাতক পাখি, যে কিনা বৃষ্টির পানি ছাড়া কিছুই পান করে না। সুবহানআল্লাহ!!!” শীর্ষক শিরোনামে একটি  দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।
দাবি করা হচ্ছে:

  • চাতক পাখি বৃষ্টির পানি ছাড়া কিছুই পান করেনা। 
  • পোস্টে সংযুক্ত ছবির পাখিটি চাতক পাখি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

চাতক পাখি বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করেনা শীর্ষক দাবি এবং চাতক পাখির ভুল ছবি সম্বলিত গণমাধ্যমের কিছু প্রতিবেদন দেখুন এখানে; ডেইলি বাংলাদেশ(আর্কাইভ), দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড (আর্কাইভ), দৈনিক বাংলা(আর্কাইভ), দৈনিক ইত্তেফাক (আর্কাইভ) এবং RTV(আর্কাইভ)।

একই বিষয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখুন আনন্দবাজার পত্রিকা(আর্কাইভ), জি নিউজ (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, চাতক পাখি বৃষ্টি ছাড়া অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করে না শীর্ষক দাবিটি সঠিক নয় এবং চাতক পাখির ছবি দাবিতে প্রচারিত ছবিটিও চাতক পাখির নয়।  

প্রকৃতপক্ষে, চাতক পাখিরা নদী, পুকুর বা অন্যান্য সব পানির উৎস থেকেও পানি পান করে এবং চাতক পাখি দাবিতে প্রচারিত ছবিটি পেলিক্যান প্রজাতির পাখির।

চাতক পাখির পরিচয়

চাতক (jacobin cuckoo) হচ্ছে Cuculidae গোত্রভুক্ত একটি পরজীবী পাখি যারা অন্য পাখির বাসায় ডিম পাড়ে। পরিযায়ী এই পাখিরা গ্রীষ্মের শুরুতে সুদূর আফ্রিকা থেকে ভারতীয় উপমহাদেশে আসে এবং শীতকালে আবার আফ্রিকাতেই চলে যায়। সুতরাং বলা যায় যে, সারা পৃথিবীর একটা বিশাল অংশ জুড়ে এদের আবাস। সাধারণত উই, পিঁপড়া, ছারপোকা এই পাখির প্রধান খাদ্য। এছাড়াও এরা বিভিন্ন ধরনের ফড়িং, পোকা (বিশেষ করে শুঁয়োপোকা) খেতে খুবই পছন্দ করে।

চাতক পাখি (Jacobin Cuckoo)

তথ্যের সত্যতা যাচাই

চাতক পাখি বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করে না’ শীর্ষক দাবির সত্যতা যাচাইয়ে বিস্তর অনুসন্ধান করে রিউমর স্ক্যানার টিম। 

ফ্যাক্ট

রিউমার স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায় যে চাতক পাখি কেবলমাত্র বৃষ্টির পানি পান করে এই দাবিটি মোটেও সত্য নয়। বিভিন্ন রিসোর্স থেকে পাওয়া তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে দেখা যায় চাতক পাখি চাতক পাখি বৃষ্টির পানি ছাড়াও অন্যান্য পাখিদের মতোই বিভিন্ন জলাশয়,যেমন: খাল-বিল, পুকুর, হৃদ এবং পানির অন্যান্য সম্ভাব্য উৎস থেকে পানি পান করে। 

চাতক পাখি কি শুধু বৃষ্টির পানি পান করে?

আমাদের সমাজে চাতক পাখি নিয়ে বেশ কিছু প্রচলিত মতবাদ রয়েছে। প্রাচীন কাবাইগ্রন্থেও এই পাখিটির উপস্থিতি বেশ লক্ষণীয়। অনেকেই বলে থাকে যে, চাতক পাখি বৃষ্টির জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা হাঁ করে থাকে। বৃষ্টি এলে মুখের মধ্যে ফোঁটা পড়ে। চাতক সেই পানি খায়। বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করতে করতে একসময় গলা শুকিয়ে গরম হয়ে যায়। চাতক তখন বৃষ্টির জন্য চিৎকার করতে থাকে। তবু বৃষ্টি হয় না! তখন চাতকের গলা দিয়ে আগুনের ফুলকি বের হয়। চাতক পাখি শুধুমাত্র বৃষ্টির পানি পান করে। তবে, উপরোক্ত দাবিগুলো কেবলমাত্র প্রচলিত লোককথা হলেও বিভিন্ন সময়ে বেশ কিছু গণমাধ্যমে উক্ত ঘটনাগুলোকে সত্য বলে প্রচার করে আসছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি প্রতিবেদন নিম্নে তুলে ধরা হলো: 

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূলধারার গণমাধ্যম ‘ডেইলি বাংলাদেশ’ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়,“পানির অপর নাম জীবন। দীর্ঘ দিন পানি ছাড়া এই বিশ্বে কোনো মানুষ বা প্রাণী জীবিত থাকতে পারে না। তবে এই পৃথিবীতেই এমন জীব আছে যারা পানি ছাড়া দিনের পর দিন কাটিয়ে দিতে পারে। যদিও কোনো পানি পান করে, তা কোনো ঝিল, বিল বা পুকুরের নয়। এই পাখিরা নাকি একমাত্র বৃষ্টির পানি পান করে। বিষয়টি হয় তো অবিশ্বাস্য মনে হবে। তবে এমন এক ধরনের পাখি আছে যারা বৃষ্টির পানির জন্য অপেক্ষা করে থাকে। আর সেই পাখিটির নাম চাতক পাখি। এই পাখির নামটা অনেকেই শুনেছেন। এই পাখিই বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো পানি পান করে না।”

Screenshot from Daily Bangladesh

ডেইলি বাংলাদেশ ছাড়াও ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকাতেও সংশ্লিষ্ট দাবির আরেকটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। উক্ত প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট:

Screenshot from আনন্দবাজার পত্রিকা

তাছাড়া, The Business Standard কর্তৃক ১৭ ই মার্চ ২০২২ সালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, “পানি পান করা ছাড়া যে বেশিদিন বেঁচে থাকা সম্ভব না, তা আমাদের সবারই জানা। কিন্তু এই পৃথিবীতেই এমন জীব আছে যারা পানি পান করা ছাড়াই দিনের পর দিন কাটিয়ে দিতে পারে। বিষয়টি অবিশ্বাস্য হলেও এদের মধ্য অনেক জীবই নির্দিষ্ট কোনো উৎসের পানি পান করে থাকে। এ ধরনের প্রাণির মধ্যে চাতক অন্যতম।

বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো উৎসের পানি পান করে না এই পাখি। কোনো স্থানে বৃষ্টি কম হলেও অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করে না চাতক।” 

২০২২ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর তারিখে  মূলধারার গণমাধ্যম RTV কর্তৃক প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, “আমরা জানি, পানি পান করা ছাড়া কোনো প্রাণীর বেঁচে থাকা অসম্ভব। আবার অনেক জীব নির্দিষ্ট উৎসের পানি পান করে থাকে। এদের মধ্যে চাতক পাখি অন্যতম। যারা বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো উৎসের পানি পান করে না।”

Screenshot: RTV News

তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে বিভিন্ন ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফি এবং ভিডিওগ্রাফিতে চাতক পাখিকে অন্যান্য পাখির মতোই নদী, খাল-বিল, হ্রদ এবং অন্যান্য সম্ভাব্য উৎস থেকে পানি পান করতে দেখা গিয়েছে। 

জলাশয় থেকে পানি খাচ্ছে চাতক পাখি (Image Source: Birds of Gujarat)
পাত্রে জমা হওয়া পানি খাচ্ছে চাতক পাখি (Youtube Video)
জলাশয় পানি খাচ্ছে চাতক পাখি (Youtube Video)

অর্থাৎ, উপরোক্ত তথ্য এবং উপাত্ত এটাই প্রমাণ করে যে চাতক পাখি বৃষ্টির পানি ছাড়া অন্য কোনো উৎস পানি করে না শীর্ষক দাবিটি সঠিক নয়। 

ছবিটি কি চাতক পাখির?

অনুসন্ধানে দেখা যায়, ভাইরাল হওয়া পোস্টে সংযুক্ত ছবিটিতে যে পাখিটিকে দেখানো হচ্ছে সেটি চাতক পাখি নয়। প্রকৃতপক্ষে এটি পেলিক্যান (বাংলায়: গগণবেড়) প্রজাতির পাখি।

Australian Pelican (Image Source: Australian Museum

পেলিক্যান বা গগণবেড় হচ্ছে Pelecanidae গোত্রের একটি বৃহৎ আকৃতির পাখি। এই পাখিটি তাদের বিশাল আকৃতির ঠোঁটের জন্য বিশেষভাবে পরিচিত। মূলত এদের ঠোঁটের নিচে একটি চামড়ার থলি থাকে। এরা কিছু শিকার করার পর থলিতে পানিসহ খাদ্য জমিয়ে রাখে এবং খাদ্য গলাধঃকরণের আগে পানি ফেলে দেয়। এই প্রাণীদের প্রধান খাদ্য মূলত মাছ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এদেরকে দলবদ্ধভাবে শিকার এবং ভ্রমণ করতে দেখা যায়। ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের এই প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায় সারা বিশ্বে পেলিক্যানদের ছয়টির অধিক প্রজাতি রয়েছে। তবে ভাইরাল ফেসবুক পোস্টে থাকা পাখিটির বাহ্যিক গড়ন দেখে নিশ্চিত যে এটি Australian Pelican প্রজাতির। 

Australian Pelican (Image Source: Birdlife Australia)

উল্লেখ্য যে, pakhi.tottho.com ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি আর্টিকেলে বলা হয়েছে, প্রায় তিন যুগ আগেও সুন্দরবনসহ আমদের দেশের বিভিন্ন নদ-নদীতে Great White Pelican (প্যালিকেন এর একটি প্রজাতি) এর দেখা পাওয়া যেত। তবে বর্তমানে প্রাকৃতিক পরিবেশে এদের দেখা না গেলেও বিভিন্ন চিড়িয়াখানায় এদের দেখতে পাওয়া যায়। তাছাড়া দৈনিক প্রথম আলোর ২০১৯ সালের একটি প্রতিবেদন থেকে তৎকালীন সময়ে গাজীপুরের শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কেও একটি সাদা প্রজাতির পেলিক্যান থাকার তথ্য পাওয়া যায়। 

পেলিক্যানটি হঠাৎ শূন্যে গলা বাড়িয়ে হাঁ করে চিবুক মেলে ধরল ক্যামেরার সামনে। ছবি: প্রথম আলো। 

অর্থাৎ, উপরোক্ত তথ্য এবং উপাত্ত এটাই প্রমাণ করে যে, চাতক পাখির ছবির দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ছবিটি পেলিক্যান প্রজাতির পাখি।

পূর্বেও কি কোথাও চাতক পাখির ছবি সম্পর্কিত ভুল তথ্য প্রচারিত হয়েছিলো?

চাতক পাখি দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ছবির মূল উৎসের সন্ধ্যনে রিভার্স  ইমেজ সার্চের সার্চের মাধ্যমে foreverfulfilled.com নামক একটি ওয়েবসাইটে  ২ জুলাই ২০১৭ সালে RAIN BIRD & SPIRITUAL SIGNIFICANCE OF MONSOON SEASON IN INDIA! শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত  প্রতিবেদনে একই ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। মূলত ওই পুরো প্রতিবেদনটি চাতক পাখিকে (Pied Cuckoo/Clamator jacobinus) নিয়ে বানানো হলেও প্রতিবেদনের সম্পাদক কোনো একটি অনাকাঙ্ক্ষিত কারণে প্রতিবেদনটিতে চাতক পাখির বদলে পেলিক্যান এর ছবি সংযুক্ত করে দিয়েছেন। 

ওয়েবসাইটটিতে Pied cuckoo বা চাতক পাখি নিয়ে আলোচনা করা হলেও ছবি ব্যাবহার করা হয়েছে Australian Pelican এর। 

অর্থাৎ, সাম্প্রতিক সময় ছাড়াও বহু সময় আগে থেকেই চাতক পাখির ছবি সম্পর্কিত ভুল তথ্য ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে।  

মূলত, চাতক পাখি বৃষ্টি ছাড়া অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করেনা দাবির পাশাপাশি একটি ছবিকে চাতক পাখির ছবি দাবি করে দীর্ঘদিন ধরে গণমাধ্যম ও ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। তবে অনুসন্ধানে জানা যায় চাতক পাখি বৃষ্টি ছাড়াও অন্যান্য উৎস থেকে পানি পান করে এবং চাতক পাখি দাবিতে প্রচারিত ছবিটি পেলিক্যান প্রজাতির পাখির, চাতক পাখির নয়।

সুতরাং চাতক পাখি বৃষ্টি ছাড়া অন্য কোনো উৎস থেকে পানি পান করেনা শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img