শুক্রবার, জুলাই 26, 2024
spot_img

সংসদ ভেঙে প্রধানমন্ত্রীকে পিটার হাসের পদত্যাগের নির্দেশ ও প্রধানমন্ত্রীর নতুন নির্বাচন ঘোষণা দেওয়ার গুজব

সম্প্রতি, ‘সংসদ ভেঙে পদত্যাগের নির্দেশ দিলো পিটার হাস নতুন নির্বাচন এর ঘোষণা দিলো হাসিনা’ শীর্ষক থাম্বনেইল এবং একই তথ্য সম্বলিত শিরোনামে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

সংসদ ভেঙে

ফেসবুকে প্রচারিত এমন ভিডিও দেকুন  এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সংসদ ভেঙে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার নির্দেশ দেওয়ার মত কোনো ঘটনা ঘটেনি। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে নতুন নির্বাচন ঘোষণা করার দাবিটিও সঠিক নয়। বরং, অধিক ভিউ পাবার আশায় ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার দুটি ভিডিওকে সমন্বয়ের মাধ্যমে তার সাথে চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায় ভিডিওটির উপস্থাপক কোনো প্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই দাবি করেন, মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করে তাকে পদত্যাগের মাধ্যমে সংসদ ভেঙে নতুন নির্বাচনের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন। এছাড়াও তিনি ভিত্তিহীভাবে নানা তথ্য তুলে ধরেন যার প্রেক্ষিতে তিনি কোনো তথ্যসূত্র উপস্থাপন করেন না। এরপর তিনি দর্শকদের উদ্দেশ্যে দুটি ভিডিও দেখান যার সাথে আলোচিত দাবির কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ১

আলোচিত ভিডিওতে দেখানো প্রথম ভিডিওর সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওতে দৈনিক ইত্তেফাক এর লোগো এবং ‘৪০ বিশিষ্ট নাগরিকের বিবৃতি’ লেখাটির মিরর ইমেজের সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Daily Ittefaq এর ইউটিউব চ্যানেলে গত ১৮ ডিসেম্বর সংসদ ভেঙে নতুনভাবে নির্বাচন দিতে ৪০ বিশিষ্ট নাগরিকের আহ্বান | Election | Election News শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি মাল্টিমিডিয়া প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Youtube

প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত প্রতিবেদনের সাথে আলোচিত ভিডিওতে দেখানো প্রথম ভিডিও প্রতিবেদনের সাথে এর হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও দেখা যায়, প্রতিবেদনটি মূলত সম্প্রতি ৪০ জন বিশিষ্ট নাগরিকের দেওয়া যৌথ এক বিবৃতিকে নিয়ে করা। যেখানে তারা সংসদ ভেঙে দিয়ে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান জানান। উক্ত প্রতিবেদনের কোথাও এই আহ্বান জানানোর সাথে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটারে সম্পৃক্ততার কথা উল্লেখ করা হয়নি। 

ভিডিও যাচাই ২

পরবর্তীতে আলোচিত ভিডিওতে দেখানো রুমিন ফারহানার ভিডিওটির সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওটির ডান পাশে উপরে থাকা Rumeen’s Voice লেখাটির মিরর ইমেজের সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Rumeen’s Voice নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৩ ডিসেম্বর মার্কিন রাষ্ট্রদূত ভারতে গেলেন কেন? Rumeen’s Voice । রুমিন ফারহানা । Rumeen Farhana শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওতে দেখানো রুমিন ফারহানার ভিডিওর সাথে উক্ত ভিডিওর শুরু থেকে ৩ মিনিট ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত অংশের হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison by Rumor Scanner

তবে ভিডিওটির কোথাও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে নতুন নির্বাচন ঘোষণা করা কিংবা পিটার হাসের নির্দেশের বিষয়ে কোনো কথা বলতে শোনা যায়না। 

এছাড়াও, মূলধারার গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্যকোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে নতুন নির্বাচন ঘোষণা করা কিংবা মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের সংসদ ভেঙে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পদত্যাগের নির্দেশ প্রদানের দাবিটির সত্যতা পাওয়া যায়নি। 

মূলত, গত ১৭ ডিসেম্বর গণমাধ্যমে ৪০ জন বিশিষ্ট নাগরিক এক যৌথ বিবৃতি পাঠান। উক্ত বিবৃতির মাধ্যমে জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে সংসদ ভেঙে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের পদক্ষেপ নিতে নির্বাচন কমিশন ও সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা। উক্ত ঘটনায় জাতীয় দৈনিক ইত্তেফাকের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত একটি মাল্টিমিডিয়া প্রতিবেদনের সাথে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)-র নেত্রী রুমিন ফারহানার একটি ভিডিও যুক্ত করে ‘সংসদ ভেঙে পদত্যাগের নির্দেশ দিলো পিটার হাস নতুন নির্বাচন এর ঘোষণা দিলো হাসিনা’ শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে আলোচিত দাবিগুলোর সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়াও দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটি মূলত অধিক ভিউ পাবার আশায় কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই চটকদার থাম্বনেইল ও শিরোনাম ব্যবহার করে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, সংসদ ভেঙে প্রধানমন্ত্রীকে পিটার হাসের পদত্যাগের নির্দেশ দেওয়া ও প্রধানমন্ত্রীর নতুন নির্বাচন ঘোষণা করার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img