হিরো আলম এমপি নির্বাচিত হননি 

সম্প্রতি, হিরো আলম বগুড়া ৪ আসন (কাহালু-নন্দীগ্রাম) হতে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে। 

 Screenshot from তৌহিদুল ইসলাম

ফেসবুকে প্রচারিত এরকম কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, গত ০১ ফেব্রুয়ারি বগুড়া ৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলমের এমপি নির্বাচিত হননি বরং মহাজোটের প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন ৮৩৪ ভোটের ব্যবধানে হিরো আলমকে হারিয়ে বগুড়া-৪ আসন হতে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া একই দিনে অনুষ্ঠিত বগুড়া ৬ আসনের উপ নির্বাচনেও হিরো আলম পরাজিত হন।

কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, বাংলাদেশের মূলধারার জাতীয় গণমাধ্যম প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণে গত ১ ফেব্রুয়ারী “বগুড়া-৪ আসনে মাত্র ৮৩৪ ভোটে হেরে গেলেন হিরো আলম” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। উক্ত প্রতিবেদনে বলা হয়,

“বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপনির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিম তানসেনের কাছে মাত্র ৮৩৪ ভোটের ব্যবধানে হেরে গেছেন আলোচিত স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলম।”

এছাড়াও প্রতিবেদনের বিস্তারিত বিবরনীতে উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বগুড়ার জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ফলাফলে দেখা যায়,

“কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলার মোট ১১২টি কেন্দ্রে মোট বৈধ ভোট পড়েছে ৭৮ হাজার ৫২৪ ভোট। এর মধ্যে ২০ হাজার ৪০৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন ১৪-দলীয় জোটের প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন (মশাল)। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আশরাফুল হোসেন (একতারা) পেয়েছেন ১৯ হাজার ৫৭১ ভোট। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মোশফিকুর রহমান (ট্রাক) ১০ হাজার ৭৯১ এবং কামরুল হাসান সিদ্দিকী (কুড়াল) ১০ হাজার ৪৪২ ভোট পেয়েছেন।”

 Screenshot from Prothom Alo website

এছাড়াও, মূলধারার গণমাধ্যম দৈনিক ইত্তেফাকের অনলাইন সংস্করণে গত ১ ফেব্রুয়ারী “অল্পের জন্য হেরে গেলেন হিরো আলম” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। উক্ত প্রতিবেদনে বগুড়ার জেলা প্রশাসক এবং নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ফলাফল খুঁজে পাওয়া যায়। 

 Image from Dainik Ittefaq website 

প্রাথমিক বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের প্রার্থী এ.কে.এম রেজাউল করিম তানসেন ২০ হাজার ৪০৫ টি ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোঃ আশরাফুল হোসেন আলম পান ১৯ হাজার ৫৭১ ভোট।

যা থেকে নিশ্চিত হওয়া যায়, আশরাফুল হোসেন আলন ওরফে হিরো আলম বগুড়া ৪ আসনের সংসদ সদস্য উপ নির্বাচনে নির্বাচনে জয়লাভ করেননি। 

এছাড়াও, বগুড়া ৪ আসনের নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যমের প্রতিবেদন দেখুন এখানে এবং এখানে

একই দিনে বগুড়া ৪ আসন ছাড়াও হিরো আলম বগুড়া ৬ আসনের উপ নির্বাচনে সংসদ প্রার্থী ছিলেন।

বগুড়া ৬ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হলেন কে?

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে মূলধারার অনলাইন সংবাদমাধ্যম ‘বিডিনিউজ২৪’ এর ওয়েবসাইটে গত ০১ ফেব্রুয়ারি ‘বগুড়া-৬ আসনে জয়ী আওয়ামী লীগের রাগেবুল’ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

 Screenshot from bdnews24.com

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রাগেবুল আহসান রিপু নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৪৯ হাজার ৩৩৬ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মান্নান আকন্দ ট্রাক মার্কায় পেয়েছেন ২১ হাজার ৮৬৪ ভোট। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন লাঙ্গল প্রতীকের নুরুল ইসলাম ওমর; তিনি পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৯৫ ভোট। এ ছাড়া একতারা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম পেয়েছেন ৫ হাজার ২৭৪ ভোট; তিনি রয়েছেন চতুর্থ অবস্থানে।

এছাড়া একই বিষয় নিয়ে মূলধারার গণমাধ্যম দ্য ডেইলি স্টারপ্রথম আলোতে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকেও একই তথ্য জানা যায়।

অর্থাৎ, আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম বগুড়া ৬ আসনের উপ নির্বাচনেও পরাজিত হয়েছেন।

মূলত, গত ০১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত বগুড়া ৪ ও ৬ আসনে সংসদ সদস্য উপ নির্বাচনে নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচিত মুখ আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম। তবে রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক ঘোষিত নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী দুইটি আসনেই পরাজিত হয়েছেন আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম। কিন্তু কোনো তথ্যসূত্র উল্লেখ ব্যতীত নির্বাচনের ফল ঘোষণা চলাকালীন সময় থেকেই হিরো আলম এমপি নির্বাচিত হয়েছেন এমন একটি দাবি ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর ফল প্রত্যাখ্যান করে গতকাল রাতে বগুড়ায় নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে হিরো আলম বলেন, ‘সারা বাংলাদেশ তাকিয়ে ছিল, হিরো আলমের আজ কী হবে? গর্বে আমার বুকটা ভরে গেছে, এই নির্বাচন নিয়ে গোটা বিশ্বের মানুষের আগ্রহ দেখে মনে হয়েছে, আমি প্রধানমন্ত্রীর ভোট করলাম। মানুষ তাকিয়ে ছিল আমার বিজয় হবে। কিন্তু সেই বিজয় ছিনতাই হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমার বিজয় ছিনতাই হয়েছে। এই ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি। এই ফলাফল বয়কট করছি। এই ফল মানি না। ফলাফল বাতিল চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট করব।’

উল্লেখ্য, নির্বাচন চলাকালে দুই আসনের ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে দুপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলম সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, সদরের (বগুড়া-৬ আসনের) কেন্দ্র সব দখল হয়্যা গ্যাচে। ডিসি-এসপিক কয়্যাও কোনো কাম হচ্চে না। সদরের আশা সব শ্যাষ।’ কাহালু-নন্দীগামের (বগুড়া-৪আসনের) অনেক কেন্দ্র ঘুরে ঘুরে দেকচি। ভোট খুব সুষ্ঠু হচ্চে। মাঠের অবস্থা খুবই ভালো। কাহালু-নন্দীগ্রামের নিশ্চিত এমপি হচ্চি।

সুতরাং, আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলম এমপি নির্বাচিত হয়েছেন দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img