সোমবার, জুলাই 22, 2024
spot_img

এমভি আবদুল্লাহ থেকে ভারতীয় নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে গুলি ছোঁড়ার ভুল দাবি গণমাধ্যমে

গত ১২ মার্চ মঙ্গলবার আফ্রিকার দেশ মোজাম্বিক থেকে কয়লা নিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে ভারত মহাসাগরে ২৩ জন নাবিকসহ বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ ছিনতাই করে সোমালিয়ার জলদস্যুরা। সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রচার করে কতিপয় গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে, বাংলাদেশের এই জাহাজটি উদ্ধার করতে গেলে ভারতের নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে গুলি ছোঁড়ে জলদস্যুরা। 

এমভি আবদুল্লাহ

উক্ত দাবিতে সংবাদ প্রচার করেছে সময় টিভি (ইউটিউব) এবং ইত্তেফাক (ইউটিউব)।

একই দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

টিকটকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সোমালিয়ান জলদস্যুরা ভারতের নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ থেকে নয় বরং মাল্টার মালবাহী জাহাজ এমভি রুয়েন থেকে গুলি ছুঁড়েছে।

গণমাধ্যমে প্রচারিত সংবাদগুলোতে সূত্র হিসেবে ভারতীয় নৌবাহিনীর মুখপাত্রের এক্স (সাবেক টুইটার) পোস্টের কথা উল্লেখ করা হয়। এই সূত্রে ভারতীয় নৌবাহিনীর মুখপাত্রের এক্স অ্যাকাউন্ট ‘স্পোকসপার্সন নেভি’ থেকে গত ১৬ মার্চ প্রকাশিত আলোচ্য ভিডিও যুক্ত মূল পোস্টটি খুঁজে পাওয়া যায়।

পোস্টটি থেকে জানা যায়, ২০২৩ সালের ১৪ ডিসেম্বর সোমালিয়ার জলদস্যুরা ‘এমভি রুয়েন’ নামের একটি জাহাজ ছিনতাই করে। পরবর্তীতে, জলদস্যুরা এই জাহাজটিকে জলদস্যু জাহাজ হিসেবে ব্যবহার শুরু করে। গত ১৫ মার্চ ভারতীয় নৌবাহিনীর একটি যুদ্ধজাহাজ ছিনতাইকৃত এই জাহাজটি আটকালে জাহাজটি থেকে জলদস্যুরা ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজের দিকে গুলি চালায়।

Screenshot: X.

পরবর্তীতে উক্ত সূত্রে গত ১৬ মার্চ কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সোমালিয়ার জলদস্যুদের ছিনতাই করা মাল্টার মালবাহী জাহাজ ‘এমভি রুয়েন’ উদ্ধার করেছে ভারতীয় নৌবাহিনী। এ সময় জাহাজের ১৭ জন নাবিককে উদ্ধার করা হয়েছে এবং আত্মসমর্পণ করেছে জাহাজে থাকা ৩৫ জলদস্যু।

অর্থাৎ, ভারতীয় নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে মাল্টার মালবাহী জাহাজ ‘এমভি রুয়েন’ থেকে গুলি ছোঁড়া হয়েছিল।

অন্যদিকে গত ১৫ মার্চ ভারতীয় নৌবাহিনীর মুখপাত্রের এক্স অ্যাকাউন্ট ‘স্পোকসপার্সন নেভি’ থেকে বাংলাদেশের পতাকাবাহী এমভি আবদুল্লাহ জাহাজ নিয়ে সর্বশেষ পোস্ট করা হয়। এই পোস্টে এমভি আবদুল্লাহয় অবস্থানরত ৪ সোমালি জলদস্যুর ছবি প্রকাশ করে ভারতীয় নৌবাহিনী।

এই পোস্টে আরও জানানো হয়, সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহকে সহায়তা করতে কাছাকাছি এলাকায় একটি ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ ও একটি দূরপাল্লার সামুদ্রিক টহল উড়োজাহাজ অবস্থান করছে।

তবে বাংলাদেশি পতাকাবাহী এমভি আবদুল্লাহ থেকে ভারতীয় নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে গুলি ছোঁড়ার কোনো তথ্য ভারতীয় নৌবাহিনী প্রকাশ করেনি।

মূলত, গত ১৬ মার্চ ভারতীয় নৌবাহিনীর মুখপাত্রের এক্স অ্যাকাউন্টে সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাতে জিম্মি হওয়া জাহাজ মাল্টার পতাকাবাহী এমভি রুয়েন থেকে ভারতীয় নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে গুলি ছোঁড়ার একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। এই ভিডিওকেই পরবর্তীতে সময় টিভি ও ইত্তেফাক বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ থেকে গুলি ছোঁড়ার ঘটনা বলে প্রচার করেছে।

সুতরাং, বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ থেকে জলদস্যুরা ভারতীয় নৌবাহিনীর উদ্দেশ্যে গুলি ছুঁড়েছে দাবিতে প্রচারিত বিষয়টি মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

হালনাগাদ/ Update

১৮ মার্চ, ২০২৪ : এই প্রতিবেদন প্রকাশ পরবর্তী সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটকে একই দাবি সম্বলিত ভিডিও আমাদের নজরে আসার প্রেক্ষিতে কতিপয় টিকটক পোস্টকে প্রতিবেদনে দাবি হিসেবে যুক্ত করা হলো।

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img