রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

হামাসের তৈরি গোপন সুড়ঙ্গ দাবিতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার সুড়ঙ্গের ভিডিও প্রচার

সুড়ঙ্গ

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট  দেখুন  এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত সুড়ঙ্গের ভিডিওটি ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের তৈরি নয়। প্রকৃতপক্ষে, এটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় যুক্তরাজ্যের লন্ডন শহরের অদূরে নির্মিত সেনাবাহিনীদের একটি সুড়ঙ্গের ভিডিও। এছাড়াও সুড়ঙ্গটির সাথে হামাস কিংবা ফিলিস্তিনের কোনো প্রকার সম্পর্কও নেই।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে ভিডিওটিতে @urbexkev ইউজারনেমের একটি টিকটক ওয়াটারমার্ক দেখা যায়। ওয়াটারমার্কটির সূত্র ধরে উক্ত টিকটক আইডিতে  #bunker #war #ww2 #history #underground শীর্ষক হ্যাসট্যাগে গত ৩১ অক্টোবর প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Facebook

ভিডিওরটির হ্যাশট্যাগ এবং লোকেশন পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত ভিডিওটির লোকেশনের জায়গায় যুক্তরাজ্যে ব্যবহার করা হয়েছে এবং ভিডিওটিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার বাঙ্কার বলেও দাবি করা হয়েছে। 

Screenshot: Facebook

উক্ত ভিডিওর হ্যাশট্যাগের সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে TheSecretVault নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ১১ জুলাই ‘TIGHT SQUEEZE BUNKER. SECRET Army Battle WW2 Underground HQ. MAN vs HOLE’ শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটির সুড়ঙ্গের সাথে উক্ত ভিডিওর সুড়ঙ্গের হুবহু মিল রয়েছে। তবে ভিডিওটিতে সুড়ঙ্গটির নাম অথবা এর অবস্থানের বিষয়ে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি। কিন্তু ভিডিওরটির বিস্তারিত বিবরণীতে beyondthepoint নামের একটি ওয়েবসাইটে ২০২১ সালের ৮ জুলাই REIGATE ARMY BATTLE HEADQUARTERS শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি প্রতিবেদনের লিংক পাওয়া যায়। 

Screenshot: beyondthepoint

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নতুন ও গোপন একটি সেনা সদরদপ্তর নির্মাণের জন্যে ইংল্যান্ডের সারে’র রিগেট শহরকে বেছে নেন। যার কারণে তিনি রিগেট শহরে আলোচিত এই সুড়ঙ্গটি তৈরি করেন। উক্ত সুড়ঙ্গটিকেই তিনি তার নতুন ও গোপন সেনা সদরদপ্তরে পরিণত করেন। যার দায়িত্ব বার্নার্ড মন্টগোমারি নামের একজন সিনিয়র ব্রিটিশ আর্মি অফিসারকে দেওয়া হয়। যিনি প্রথম এবং দ্বিতীয় বিশ্বযু্দ্ধে ব্রিটিশ সেনা সদস্য হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছিলেন। যার কারণে উক্ত সুড়ঙ্গটি Monty’s Hideout নামেও জনপ্রিয় ছিল। 

Screenshot: beyondthepoint

এছাড়াও উক্ত প্রতিবেদনটিতে সুড়ঙ্গটির বেশকিছু ছবিও দেখতে পাওয়া যায়। যার সাথে আলোচিত সুড়ঙ্গটির মিল রয়েছে।

Screenshot: beyondthepoint

পরবর্তী অনুসন্ধানে TheSecretVault নামের ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওর শুরুতে দেখতে পাওয়া কাঠের দরজা, বাদামী রঙের ভবন এবং ভবনের বাইরে ‘The National Trust’ শীর্ষক ফলকটি গুগল স্ট্রিট ভিউ এ খুঁজে পাওয়া যায়। 

Location Comparison by Rumor Scanner

অর্থাৎ, আলোচিত ভিডিওর সুড়ঙ্গটি ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের তৈরি নয়।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে “দ্য ডেইলি মেইল” এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায় , দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় যুক্তরাজ্যে ছয়শোর বেশি গুপ্ত বাঙ্কার নির্মিত হয়। এই বাঙ্কারগুলো সৈন্যদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ মিলিটারি বেইস হিসেবে কাজ করতো, যেগুলো সৈন্যদের মৌলিক চাহিদা অনুযায়ী কাঠের বিছানা, রান্নার উপকরণ ও কেমিক্যাল টয়লেটে সুসজ্জিত ছিল। সেসময়ের অনেক বাঙ্কার খুঁজে পাওয়া গেলেও তাদের সিংহভাগের অবস্থানই এখনো অজানা।

মূলত, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ভিন্ন ও নতুন ধরনের গোপন সেনা সদরদপ্তর নিমার্ণের জন্যে ব্রিটেনের সেসময়ের প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিল ইংল্যান্ডের সারে’র রিগেট শহরে একটি সুড়ঙ্গ তৈরি করেন। যেটিকে তিনি তার ভিন্নধর্মী সেনা সদরদপ্তরে পরিণত করেন। বিধ্বস্ত সেই সুড়ঙ্গটি বর্তমানে উৎসুক তরুণদের আর্কষণের কেন্দ্র বিন্দু হওয়ায় প্রায়শই বিভিন্ন ইউটিউবার, টিকটকাররা সেখানে গিয়ে সুড়ঙ্গটির ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করছে। সাম্প্রতিক সময়ে উক্ত সুড়ঙ্গেরই একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গাজা উপত্যকায় মাটির নিচে হামাসের তৈরি সুড়ঙ্গের ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

সুতরাং, হামাসের তৈরি গোপন সুড়ঙ্গ দাবিতে ‍দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় যুক্তরাজ্যে নির্মিত একটি সুড়ঙ্গের ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img